২৯ বছরের পুরনো রেকর্ড ভেঙ্গে বিশ্বকাপে জিতল পাকিস্তান

অবশেষে মেয়েদের বিশ্বকাপে টানা ১৮ ম্যাচ হারার পর জয়ের মুখ দেখল পাকিস্তান। চলতি বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম চারটি ম্যাচে হারের পর নিজেদের পঞ্চম ম্যাচে বিসমাহ মারুফরা হারিয়ে দেন শক্তিশালী ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। বৃষ্টির জন্য ৫০ ওভারের ম্যাচ কমে দাঁড়ায় ২০ ওভার প্রতি ইনিংসে। টস জিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে শুরুতে ব্যাট করতে পাঠায় পাকিস্তান।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটের বিনিময়ে ৮৯ রানে আটকে যায়। জবাবে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তান ১৮.৫ ওভারে ২ উইকেটের বিনিময়ে ৯০ রান তুলে ম্যাচ জিতে যায়। ওপেনার মুনিবা আলি দলের হয়ে সব থেকে বেশি ৩৭ রান করেন। অপর ওপেনার সিদরা আমিন ৮ রান করে সাজঘরে ফেরেন। ক্যাপ্টেন বিসমাহ মারুফ অপরাজিত থাকেন ২০ রানে।

এদিকে ২২ রান করে নটআউট থাকেন ওমাইমা সোহেল। ৭ বল বাকি থাকতে ৮ উইকেটে ম্যাচ জেতে পাকিস্তান। আর সেই সঙ্গে ২৯ বছর আগের বিশ্বকাপ রেকর্ড স্পর্শ করল অংশগ্রহণকারী দলগুলো। এ বার মেয়েদের বিশ্বকাপে অংশ গ্রহণক প্রতিটা দলই অন্তত পক্ষে ১টি করে ম্যাচে জয় পেয়েছে। এই নিয়ে তৃতীয় বার মেয়েদের বিশ্বকাপে এমন নজির তৈরি হল।

এর আগে ১৯৭৩ সালে ৭টি টিম অংশ নিয়েছিল মেয়েদের বিশ্বকাপে। অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, ইন্টারন্যাশনাল একাদশ, জামাইকা, নিউজিল্যান্ড, ত্রিনিদাদ এন্ড টোবাগো এবং ইয়ং ইংল্যান্ড- এই সাত দলের মধ্যে প্রতিটি দলই কম করে একটি করে ম্যাচ জিতেছিল। এর ২০ বছর পর একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটে। সে বার অংশ নিয়েছিল ৮টি টিম। অস্ট্রেলিয়া, ডেনমার্ক, ইংল্যান্ড, ভারত, আয়ারল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস, নিউজিল্যান্ড এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

এই ৮টি দলের মধ্যে প্রতিটা টিমই অন্তত একটি করে ম্যাচ জিতেছিল। ফের ২৯ বছর পর মেয়েদের বিশ্বকাপে অংশ গ্রহণকারী ৮টি টিমই কমপক্ষে একটি করে ম্যাচ জেতার নজির গড়ল। এর আগে পাকিস্তান ৪ ম্যাচ খেলে কোনওটাতেই জয় পায়নি। কিন্তু সোমবার তারা তাদের পঞ্চম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ৮ উইকেটে জয় ছিনিয়ে নেয়। সেই সঙ্গে ২০২২ মেয়েদের বিশ্বকাপও স্পর্শ করে ফেলে বড় মাইলস্টোন।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*