২২ আফগান কমান্ডোকে হ’ত্যার ভিডিও প্রকাশ!

আফ’গানি’স্তানের ২২ কমা’ন্ডোকে গু’লি করে হ-ত্যা ক’রেছে তা’লিবানরা। তুর্কমিনিস্তান সীমান্তবর্তী ফারিয়ব প্রদেশের দৌলত আবাদ শহরে গত ১৬ জুন এ ঘট’না ঘ’টে। সদ্য প্রকাশিত এক ভিডিওর বরাত দিয়ে সিএনএন জানায়, নি’হ’ত ব্যক্তিরা আফগান স্পেশাল ফো’র্সের সদস্য। ঘটনাটির একাধিক ভিডিও ও প্রত্যক্ষদর্শীর সঙ্গে কথা বলে নিশ্চিত হয়েছে বলে জানায় সংবাদ মাধ্যমটি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুই পক্ষের মাঝে এ এলাকায় ভ’য়াব’হ যু’দ্ধ হয়। পরে তা’লিবানদের হাতে আ’ত্ম’সমর্পণ করে আফগান সেনারা। স্পষ্ট কিন্তু এ’লোমেলো’ভাবে ধারণ একটি ভিডিওতে শোনা যায়, ‘আত্মসমর্পণ করো ক’মান্ডোরা, আত্মসমর্পণ করো।’ এরপর নির’স্ত্র কয়েকজন মানুষকে একটি বাড়ি থেকে বের হতে দেখা যায়। তারপর গু’লি’র শব্দ। এতে কমপক্ষে এক ডজন মানুষ মা’রা যায়। যাদের মুখে কা’ন্নার সঙ্গে শোনা যায়, ‘আল্লাহু আকবর’।

৪৫ সেকেন্ডের আরেকটি ভিডিওতে স্থানীয় পশতু ভাষায় একজনকে বলতে শোনা যায়, ‘তাদের গু’লি ক’রো না, গু’লি ক’রো না। আমি অনুরোধ করছি তাদের গু’লি করো না।’ একই ব্য’ক্তিকে পরে বলতে শোনা যায়, ‘কীভাবে পশ’তুন হয়ে আফগানদের হ-ত্যা ক’রছেন?’

পাশতুনরা আফগানিস্তানের প্রধান নৃতা’ত্ত্বিক গোষ্ঠী। এ দিকে রেড ক্রস নিশ্চিত করেছে, তারা ২২ জন ক’মান্ডোর মৃ’ত’দে’হ উদ্ধার করেছে। তবে সিএনএনকে তালিবানের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, গু’লি’র ভিডিওটি ভুয়া। জনগণকে আ’ত্মসম’র্পণ না করার জন্য সরকার এ অপ’প্রচার চালাচ্ছে। তালিবান মুখপাত্র জানান, তাদের হাতে ফা’রিয়ব প্রদেশে বন্দী ২৪ জন কমা’ন্ডো রয়েছে, যদিও এ বিষয়ে কোনো প্রমাণ দেননি তিনি।

দৌলত আবাদের লড়াইয়ের তিন দিন পর তা’লিবান’দের পক্ষে একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়। সেখান দেখা যায়, তারা সামরিক ট্রাক ও অ’স্ত্র জ’ব্দ ক’রেছে। ভিডিওতে দাবি করা হয়, সিআইএ’র বিশেষ প্রশিক্ষণ পাওয়া কমান্ডো অনুসরণ করছিল তাদের। তাকে আ’টক করা হয়েছে।

যদিও আফগান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় কোনো কমান্ডো বন্দী থাকার কথা অস্বীকার করে জানায়, তাদের হ-ত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনাকে যু’দ্ধাপ’রাধ হিসেবে বর্ণনা করেছে মা’নবাধিকার পর্যবেক্ষণ সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ইউকে।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*