হল খোলার বিষয়ে যা জানালেন ঢাবি ভিসি!

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল খোলার দাবিতে প্রশাসনকে দেওয়া আল্টিমেটাম এক ঘণ্টা পরই প্র’ত্যাহার করে নিলেন আ’ন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। উপাচার্যের সঙ্গে বৈঠকের পর তারা এই কথা জানান।

এদিকে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, ‘আগামীকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা পরিষদের সভা রয়েছে। সেখানে আমরা সরকারের জাতীয় সিদ্ধান্তগুলোর সঙ্গে সমন্বিত করে একটি সিদ্ধান্ত নেবো।’

আজ সোমবার (২২ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৩টায় হল খোলার দাবিতে বি’ক্ষোভ সমাবেশ করে কর্মসূচি ঘোষণা করেন ঢাবির বিভিন্ন হলের শিক্ষার্থীরা। সমাবেশ শেষে হল খুলতে প্রশাসনকে তারা ৭২ ঘণ্টার আ’ল্টিমেটাম দেন। এরপর তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে স্মারকলিপি পেশ করেন।

এসময় উপাচার্যের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের বৈঠক হয়। বৈঠক শেষে আ’ন্দোলনকারী শিক্ষার্থী জোনাইদ হোসেন জানান, মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা পরিষদের সভায় হল খোলার দাবির বিষয়ে আলোচনা হবে। এর পর তারা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে আ’ন্দোলনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন।

হল খোলার দাবিতে ঢাবি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভহল খোলার দাবিতে ঢাবি শিক্ষার্থীদের বিক্ষো’ভ আজ সোমবার এক ভার্চুয়াল প্রেস ব্রিফিংয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ে আগামী ১৭ মে থেকে হল খুলে দেওয়া হবে।

আর ২৪ মে থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শ্রেণিকক্ষে সরাসরি পাঠদান শুরু হবে। ২৪ মে’র আগে কোনও ধরনের পরীক্ষা নেওয়া যাবে না। সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় খোলার আগে সব শিক্ষক ও শিক্ষার্থীকে টিকা দেওয়া হবে। টিকা ছাড়া কেউ হলে উঠতে পারবেন না।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *