স্বামী প্রবাসে, তরুণীর দাবি বাতাসে গর্ভবতী হয়ে সন্তান জন্মদান

বাতাসের মাধ্যমে গর্ভবতী হয়েছেন এমন এক দাবি করে হইচই ফেলে দিয়েছেন এক নারী। এরপর এ ঘটনার তদন্তে নেমেছে ইন্দোনেশিয়ার পুলিশ। ২৫ বছর বয়সী সিতি জাইনাহ নামের ওই নারীর দাবি, তিনি গর্ভবতী বুঝতে পারার এক ঘণ্টা পর সন্তান জন্ম দিয়েছেন।

গত সপ্তাহে সুস্থ সবল একটি মেয়ে শিশুর জন্ম দেন জাইনাহ। গত সপ্তাহে পশ্চিম জাভা প্রদেশের চিয়ানচুর শহরে এমন ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় গণমাধ্যমকে জাইনাহ বলেন, তিনি তার ঘরেই ছিলেন, এসময় তার বাড়ির ওপর দিয়ে দমকা বাতাস বয়ে যায়।

এর ১৫ মিনিট পর তিনি পেটে ব্যথা অনুভব করেন এবং তার পেট ফুলে উঠতে থাকে। এরপর তাকে একটি কমিউনিটি হেলথ ক্লিনিকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তিনি একটি মেয়ে শিশুর জন্ম দেন।

স্থানীয় মিডিয়াকে জাইনাহ বলেন, জোহরের নামাজের পর আমি শুয়ে ছিলাম। এসময় আমার গোপনাঙ্গে বাতাসের ঝটকা লাগে।এমন অদ্ভুত গর্ভাবস্থার খবরে চারিদিকে হইচই পড়ে গেছে। পরে তা পুরো শহরে ছড়িয়ে পড়ে। শেষপর্যন্ত সোশ্যাল মিডিয়ায় তা ভাইরাল হয়ে যায়।

স্থানীয় কমিউনিটি স্বাস্থ্য ক্লিনিকের পরিচালক ইমান সুলাইমান বলেছেন, ওই নারী সম্ভবত ক্রিপ্টিক গর্ভাবস্থার অভিজ্ঞতা পেয়েছেন। এ ধরনের গর্ভাবস্থায় লেবার হওয়ার আগ পর্যন্ত একজন নারী বুঝতে পারেন না যে তিনি গর্ভবতী।

উল্লেখ্য, এ ধরনের ঘটনা নতুন নয়। গত বছর যুক্তরাজ্যে এ ধরনের একটি ঘটনা ঘটেছে। গ্রেস মিয়াচিম নামের একজন নারী ৩৭ সপ্তাহ গর্ভাবস্থায় পৌঁছানোর পর তার পেট ফুলে উঠতে থাকে।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*