সৌম্যকে দাবার গুটি বানিয়ে খেলেছে বিসিবি

আমাদের দেশের ক্রিকেট প্রেমিদের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া রয়েছে। এদের মাঝে একদল আছে যারা দেশের প্রতিটা খেলোয়ার এর পক্ষে কথা বলে। মানে তাদের সাথে ঘটে যাওয়া অন্যায়ের বিপক্ষে বলে। তারাই দিন শেষে হাস্যকর! আর এক ধরনের ভক্ত আছে তারা শুধু তার প্রিয় খেলোয়াড় এর পক্ষেই থাকে।

তাতে অন্য কোনো খেলোয়ারের সাথে অন্যায় হলেও তারা এসে সেই অন্যায়ের পক্ষে যুক্তি দেখায়। তারা কোনো কিছু বিবেচনা না করেই উল্টাপাল্টা যুক্তি তুলে ধরবে। তারা এটা ভাবে না এই অন্যায় বিডি টিমের যে কারো সাথে হতে পারে। যাই হোক ফালতু ইসু না টানি। সৌম্য সরকার ২০১৯ সালের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ছিলেন না।

অথচো এই সৌম্যই ২০১৯ সালে সেরা তিন ব্যাটসম্যান এর একজন ছিল। তারপর ২০২০ সালের চুক্তিতে থাকা খেলোয়ারদের নাম ঘোষণা করা হলো সেখানে নেই সৌম্য। চারদিক থেকে প্রশ্ন আসতে থাকে সৌম্য নেই কেন? তারপর নিজেদের ভুল প্রকাশ করে সৌম্যর নাম চুক্তিতে এড করে বিসিবি।

নাম এড করলো ভালো কথা, সৌম্য কোন ক্যাটাগরিতে জায়গা পেয়েছিল জানেন, দেশের সর্বোচ্চ ক্যাটাগরি এ প্লাস, এখানে ছিলেন মুশফিক, তামিম, রিয়াদ এবং সৌম্য। অবশ্যই সৌম্য এই ক্যাটাগরির যোগ্য ব্যাক্তি ছিল। তারপর সৌম্য কি এমন বাজে পারফরম্যান্স করলো, আসুন দেখে নেই।

২০২০ সাল থেকে ২৮-৫-২০২১ পর্যন্ত বাংলাদেশ ম্যাচ খেলেছে টেস্ট ৬টি, টি টোয়েন্টি ৭ টি, ওয়ানডে ১২ টি। সৌম্য খেলেছে, টেস্ট ১ টি, টি টোয়েন্টি ৭ টি, ওয়ানডে ৬ টি। সৌম্যর পরিসংখ্যান, টেস্ট, ০(৪), ১৩(৩৪) দুই ইনিংসে। ওয়ানডেঃ ম্যাচ ৬, ইনিংস ৪ — ৭(৮), ০(৩), ৩২(৪৬), ১(৬) এর মাঝে ১ ইনিংস ৭ নম্বরে ব্যাটিং করেছে, ৩ ইনিংস নিউজিল্যান্ডে ৩ নম্বরে।

তিন নম্বরে নেমে সৌম্য সরকার ব্যর্থ হয়েছেন, নিউজিল্যান্ডে ভাল করেছে কে? টি টোয়েন্টি ঃ ম্যাচ ৭ ইনিংস ৭, — ৭(৫), ৫(৫) এই দুই ইনিংস পাকিস্তানে ৬ এবং ৭ নম্বরে ব্যাট করেছে। ৩ নম্বরে ব্যাট করা বাকি ৫ ইনিংস, ৬২(৩২), ২০*(১৬), ৫(৬), ৫১(২৭), ১০(৪)। শেষ তিন ইনিংস নিউজিল্যান্ডে।

এই সময়ে লিটন দাস বাদে ২ টি হাফ সেঞ্চুরি করতে পারে নি আর কেউ। তামি বাদে কোনো হাফ সেঞ্চুরি-ই ছিল না আর একটিও। লিটন দাস ২ টিই করেছে জিম্বাবুয়ে সিরিজে। সৌম্য সরকার এর এই বাজে সময়ে মোট যে কটা ইনিংসে খারাপ করেছে, পঞ্চ পান্ডাবের বাকি চার সদস্য বাদ দিলে, বাকি যারা রয়েছে সবাই সৌম্যার থেকেও খারাপ করেছে।

সৌম্য মোট ওয়ানডেতে ৪ ইনিংস খারাপ করেছে, সেখানে অন্যরা টানা ৮-১০ ইনিংস খারাপ করেছে। সৌম্য টি টোয়েন্টি তে ৪ ইনিংস খারাপ করেছে, সেখানে অন্যারা ৭ ইনিংসেই খারপ করেছে, সৌম্য মাত্র ২ ইনিংস টেস্টে খারাপ করেছে সেখানে অন্যারা ৬-৮ ইনিংস খারাপ করেছে।

এই সময়ে লিটন দাস, মোহাম্মদ মিঠুন, নাঈম শেখ, আফিফ হোসেন, শেখ মাহাদি, সবাই খারাপ করেছে। খারাপ করেছে সিনিয়রদের মাঝ থেকেও দু, একজন 👉 আফসোস সৌম্যর এই পরিসংখ্যান বোঝাতে বাকিদের টানতে হলো, সেজন্য দুঃখিত🙏 কেননা আমি একজনের ব্যর্থতা অন্য জনের ব্যর্থতা দিয়ে ঢাকতে চাই না🙏🙏।

সৌম্য সরকার কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পরবে কেন? সাদা বলের চুক্তি থেকে বাদ পরতে তার ওয়ানডে ৪+ টি, টোয়েন্টিতে ৪ ইনিংসে বাজে পারফরম্যান্স কি বাদ পরার জন্য যথেষ্ঠ? হ্যা তার বাজে পারফরম্যান্স এর জন্য তার অবনতি হতে পারে। এ প্লাস থেকে এ, বি, কিংবা সি গ্রেডে নেমে যেতে পারে।

কিংবা শুধু টি টোয়েন্টির জন্য ডি গ্রেডে নেমে যেতে পারে। সরাসরি চুক্তি থেকে বাদ পরে কেমনে? বিসিবি যদি আসলেই সিরিয়াস হয়ে থাকে, আর পারফরম্যান্স এর জন্য সৌম্য কে চুক্তি থেকে বাদ দেয়, তাহলে সৌম্যর সাথে আরও অনেকে বাদ পরার কথা। আর যারা বলে সৌম্যকে অনেক সুযোগ দেওয়া হয়েছে।

তার যেন উপরের সমীকরণ বার বার পড়ে দেখে। তারপর যেন ভুল প্রমান করে আমার লেখাগুলো। বিদ্রঃ সৌম্য চুক্তিতে থাকা, না থাকায় আমার কোনো বেনিফিট নেই। তার বাদ পরাতে আপনাদেরও কোনো বেনিফিট নেই। কিন্তু ক্রিকেটীয় দৃষ্টিতে বিবেচনা করুন, চুক্তি থেকে বাদ পরার জন্য এই পারফরম্যান্স কি যথেষ্ট ছিল?

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*