সেই দুই ভাইবোনকে নিয়ে গেল ইসরাইলি পুলিশ! (ভিডিও)

পূর্ব জেরু’জালে’মের শেখ জারাহ বসতি থেকে উ’চ্ছে’দের প্রতি’বাদ করায় দুই ভাইবোনকে গ্রে’ফতার করেছে ই’সরাই’লি পু’লিশ। তারা হলেন মুনা আল কুর্দ এবং তার ভাই মোহাম্মদ আল কুর্দ। এর আগে শেখ জারাহতে প্রতিবাদ কর্মসূচির নিউজ সংগ্রহের সময় আল’জাজি’রার সাংবাদিক জিভারা বুদেইরিকে গ্রে’ফতার করে ই’হুদি বাহি’নী। অবশ্য কয়েক ঘন্টা পরে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়।

দুই ভাইবোনকে গ্রে’ফতা’রের বি’ষয়ে তাদের বাবা নাবিল আল কু’র্দ বলেন, পুলিশ শেখ জা’রাহতে তাদের বাড়িতে হা’না দেয়। তারা মুনা আল কুর্দকে গ্রে’ফতার করে নিয়ে যায় এবং মোহাম্মদ আল কুর্দকে থা’নায় হাজির হওয়ার নির্দেশ দেয়। পরে আইনজীবী নাসের ওদেহ জানান, মোহাম্মদ আল কু’র্দকেও গ্রে’ফ’তার ক’রেছে ইস’রাই’লি বাহি’নী।

সন্তানদের গ্রে’ফতারের বি’ষয়ে সংবাদ সংস্থা অ্যাসো’সিয়েটেড প্রেস এজে’ন্সিকে নাবিল আল কুর্দ বলেন, তাদের গ্রে’ফ’তারের কারণ হলো-নিজ বাড়ি ছেড়ে চলে যেতে না চাওয়া। ইস’রাই’লি পু’লিশ কা’উকে মত প্রকাশ করতে দিতে চায় না অ’ভিযোগ করে দুই সন্তানের বাবা বলেন, তারা আ’মাদেরকে চুপ করিয়ে দিতে চায়।

আল জাজিরার খবরে বলা হয়, ফি’লিস্তি’নের প্রখ্যা’ত মা’নবাধিকার কর্মী মুনা আল-কুর্দ অধিকৃত পূর্ব জেরু’জালেমের শেখ জারাহ ব’সতিতে ই’সরাই’লের অ’বৈধ দখ’লদারিত্বের বিরুদ্ধে আন্দোলনের নেতৃত্ব দিয়ে আসছিলেন। এই অঞ্চলে গত তিন মাস ধরে ইস’রাই’লি বা’হিনীর বলপ্রয়োগপূর্বক উৎখাতের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে হ্যা’শট্যাগে ‘সেইভ শেখ জারাহ’ ক্যাম্পেইন চালিয়ে আসছিলেন দুই ভাই-বোন।

তাদের এই আন্দোলন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিশ্বের নজর কাড়ে। গত মাসে ইস’রাই’লি পু’লিশ শেখ জারাহ ব’সতি থেকে ফি’লি’স্তিনিদের চলে যাওয়ার নির্দেশের পর মুনা ও তার ভাইয়ের নেতৃত্বে হাজার হাজার ফি’লিস্তি’নি বি’ক্ষোভ শুরু করেন যা এখনও চল’মান রয়েছে।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*