সাকিবের সঙ্গী শুধু ক্যালিস ও জয়সুরিয়া

আরেকটি রেকর্ডে নাম লেখালেন সাকিব আল হাসান। নিজের অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্সের জন্য আরেকটি রেকর্ড বইয়ে নিজের নাম লেখালেন সাকিব। আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতে ২৫০ উইকেট এবং ৫০টি অর্ধশতক আছে–এমন ক্রিকেটারদের পাশে জায়গা করে নিলেন বাংলাদেশের এ অলরাউন্ডার।

সুপারস্পোর্ট পার্কে শুক্রবার (১৮ মার্চ) দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ব্যাটিংয়ে সাকিব, লিটন, ইয়াসিরসহ বাকিদের পারফরম্যান্সের পর বল হাতে জ্বলে উঠেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে প্রথম জয়ের পর ম্যাচসেরা হয়েছেন সেই সাকিবই। তবে রেকর্ডটা করেছেন সাকিব তার অলরাউন্ডিং পারফরমেন্স দিয়ে।

কাল বোলিংয়ে সাফল্য না পেলেও ব্যাটিংয়ে সাকিব করেছেন ৬৪ বলে ৭৭ রান। যার ফলে বাংলাদেশের হয়ে দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে পঞ্চাশের পঞ্চাশে নাম লিখিয়েছেন সাকিব। প্রথম ব্যাটসম্যান বাংলাদেশের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক তামিম ইকবাল। আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতে ২৫০ উইকেট এবং ৫০টি অর্ধশতক আছে মাত্র তিন খেলোয়াড়ের।

তৃতীয় খেলোয়াড় হিসেবে কাল নাম লেখালেন সাকিব। এর আগে এই রেকর্ডে নাম আছে দক্ষিণ আফ্রিকার জ্যাক ক্যালিস ও শ্রীলঙ্কার সনাৎ জয়সুরিয়ার। ওয়ানডে ক্রিকেটে সাকিবের উইকেটসংখ্যা ২৮২, জয়সুরিয়ার ৩২৩ ও ক্যালিসের ২৭৩। অর্ধশতকের দিক দিয়ে সাকিব থেকে অনেক এগিয়ে সেই দুজন।

৮৬টি অর্ধশতক নিয়ে এ তালিকায় প্রথমে আছেন প্রোটিয়া কিংবদন্তি। আর লঙ্কান কিংবদন্তি জয়সুরিয়ার অর্ধশতকসংখ্যা ৬৮টি। সাকিব ৫০টি অর্ধশতক নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছেন। এই তিন অলরাউন্ডার ছাড়া আর কেউ ওয়ানডেতে ন্যূনতম ২৫০ উইকেট ও ৫০টি পঞ্চাশের দেখা পাননি।

এমন কীর্তি গড়ে নিশ্চয়ই গর্বে বুক উঁচু করতে পারেন সাকিব। বোলিংয়েও তাদের ছাড়িয়ে জেতে পারেন সাকিব। একদিনের ক্রিকেটে সাকিবের উইকেটসংখ্যা ২৮২। জয়সুরিয়ার উইকেটসংখ্যা ৩২৩টি আর ক্যালিসের উইকেট ২৭৩টি।

সাকিবের ক্যারিয়ারে হয়তো বাকি আছে আর তিন থেকে চার বছর। তবে সবার প্রত্যাশা থাকবে–সামনের সময়গুলোয়ও এমন পারফরম্যান্স ধরে রেখে নিজের শেষ সময়টা যেন রাঙিয়ে জেতে পারেন বাংলাদেশের অলরাউন্ডার সাকিব।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*