সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতা, এক ম্যাচে রোনালদোর যত ইতিহাস

চলতি ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে একমাত্র খেলোয়ার হিসেবে প্রতি গোলেই কোনো না কোনো রেকর্ড ভেঙেছেন বা গড়েছেন পর্তুগালের অধিনায়ক এবং সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। বয়স যে আসলে একটা সংখ্যা মাত্র ৩৬ বছর বয়সী রোনালদো যেন নিজের খেলা দিয়ে সেই কথাই বার বার আমাদের স্মরণ করিয়ে দেয়।

ফুটবলে যে বয়সে খেলোয়াররা পরিবার সামলাতে ব্যস্ত সময় পার করে, সেখানে বিরতিহীনভাবে রোনালদো জয় করে চলেছে একের পর এক নতুন সম্রাজ্য। গতকালও এক অনন্য কীর্তি গড়েছেন রোনালদো। যে কীর্তি করা হয়তো প্রতিটি খেলোয়ারের মনের লুকায়িত স্বপ্ন। সে কীর্তি ছুঁয়ে ফেললেন রোনালদো। ১৮ বছরে দেশের জার্সি গায়ে করলেন ১০৯ গোল।

রাতে ফ্রান্সের সাথে করা দ্বিতীয় গোলটি-ই তাকে বসিয়ে দেয় আন্তর্জাতিক ফুটবলে সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতার আসনে। তবে এখনও যৌথভাবে আছেন এই পর্তুগীজ সম্রাট। তবে শীঘ্রয়ই আসনটি নিজের করে নিবে, এ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই কোপেনহেগেনের পারকেন স্টেডিয়ামে বুধবার রাতে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ‘এফ’ গ্রুপের শেষ রাউন্ডে ফ্রান্সের বিপক্ষে দলের দ্বিতীয় গোলটি করে ইরানের আলি দাইয়েকে স্পর্শ করেন রোনালদো।

টুর্নামেন্টের প্রথম তিন ম্যাচেই পাঁচ গোলের সুবাদে আন্তর্জাতিক ফুটবলে রোনালদোর গোলসংখ্যা এখন ১০৯টি। তিনিই এখন যুগ্মভাবে আন্তর্জাতিক ফুটবলের সর্বোচ্চ গোলদাতা। জাতীয় দলের হয়ে এ দুজনের চেয়ে বেশি গোল করতে পারেননি আর কেউ।ম্যাচের শুরুতে দলকে এগিয়ে নেওয়া গোলেও আরেকটি নতুন ইতিহাস লেখেন পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার।

প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে বিশ্বকাপ ও ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ মিলিয়ে ২০ গোল করেন তিনি। এখন ওই সংখ্যাটি ২১। ইউরোর ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ডও তার দখলে; এখানে তার মোট গোল হয়েছে ১৪টি। এ দুই টুর্নামেন্ট মিলে এতদিন ধরে সর্বোচ্চ ১৯ গোলের রেকর্ড ছিল জার্মানির মিরোস্লাভ ক্লোজার।

ইউরো কাপের এবারের আসরে প্রথম তিন ম্যাচেই ৫ গোল করে সেই রেকর্ডও নিজের নামে করে নিয়েছেন রোনালদো। এবারের ইউরোটা স্বপ্নে মতো কাটছে রোনালদোর। গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে জোড়া গোল। পরের ম্যাচে জার্মানির বিপক্ষে এক গোল, সঙ্গে একটি অ্যাসিস্ট আর শেষ ম্যাচে ফ্রান্সের বিপক্ষে জোড়া গোল করে দলকে নকআউট পর্বের টিকিট এনে দিয়েছেন তিনি।

গ্রুপ পর্বের তিন ম্যাচে পাঁচ গোলের সঙ্গে নামের পাশে আছে আরও একটি অ্যাসিস্টও। তাতেই এবারের ইউরোতে পর্তুগালের করা মোট ৭টি গোলের ছয়টিতেই অবদান রোনালদোর। এদিকে আলী দাইয়ের ১০৯টি আন্তর্জাতিক গোলের রেকর্ড স্পর্শ করায় অভিনন্দন জানিয়েছেন তিনি। নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে আলী দাই লিখেছেন, ‘অভিনন্দন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।

আন্তর্জাতিক ফুটবলে পুরুষদের মধ্যে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়া থেকে আর মাত্র একটি গোলের দূরত্বে আছেন। আমি গর্ববোধ করছে যে এই রেকর্ডটি রোনালদোর দখলে যাচ্ছে। সে বিশ্বসেরা ফুটবলার এবং দারুণ একজন মানুষ। সে গোটা বিশ্বের মানুষের জন্য অনুপ্রেরণা।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*