শুভ জন্মদিন তামিম ইকবাল

বাংলাদেশের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক তামিম ইকবালের ৩৩তম জন্মদিন আজ। ১৯৮৯ সালের এ দিনে পৃথিবীতে এসেছিলেন বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসের এই যুগস্রষ্টা। এখন পর্যন্ত টাইগারদের দলে তামিমের সঙ্গে কে ওপেনিং করবেন সেটা নিয়ে অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেন নির্বাচকরা। তবে তার সমতুল্য এখন পর্যন্ত কাউকে খুঁজে পাননি তারা।

বাংলাদেশের ক্রিকেট গৌরবগাথার অনেক অধ্যায়ই রচিত হয়েছে তার ব্যাটে। এখন পর্যন্ত তিন ফরম্যাটেই বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ রান তামিমের। এক দশক ধরে প্রায় একই ধারাবাহিকতায় ব্যাট হাতে মুগ্ধতা ছড়িয়ে যাচ্ছেন বাংলাদেশের বাঁ-হাতি এ ওপেনার। চট্টগ্রামে বিখ্যাত খান পরিবারে জন্ম তামিমের।

তার বাবার নাম ইকবাল খান, মা নুসরাত খান ইকবাল। ১৯৪৭ সালে দেশ বিভাগের সময় ভারতের উত্তর প্রদেশ থেকে বাংলাদেশে চলে আসেন তামিম ইকবালের দাদা। ক্রিকেট পরিবারেই জন্ম তামিমের। চাচা আকরাম খান বাংলাদেশের হয়ে টেস্ট খেলেছেন। নেতৃত্বও দিয়েছেন দলকে। এখন আছেন বিসিবির গুরুত্বপূর্ণ পদে।

তামিমের বড় ভাই নাফিস ইকবালও দেশের হয়ে টেস্ট খেলেছেন। দেশের হয়ে এখন পর্যন্ত টেস্টে ৪৭৮৮ এবং ওয়ানডেতে ৭৬৬৬ হাজার রান করেছেন ক্রিকেটার তামিম। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে ১০০০ রান করেছিলেন তামিম। এখন তার টি-টোয়েন্টিতে মোট রান ১৭৫৮।

মুশফিকুর রহিমের পর তামিম ইকবাল বাংলাদেশের ২য় ক্রিকেটার হিসাবে টেস্টে দ্বি-শতক করেছেন। এ ছাড়াও ওয়ানডেতে বাংলাদেশের হয়ে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে পঞ্চাশের পঞ্চাশ করেছেন তামিম। এখন পর্যন্ত এক দিনের ক্রিকেটে তামিমের পঞ্চাশ ৫১টি। ২০০৯ মৌসুমের জুলাই-আগস্ট মাসে বাংলাদেশের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে তামিম ইকবাল তার প্রথম টেস্ট শতক করেন।

প্রথম একদিনের আন্তর্জাতিক শতক আসে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে। এদিকে তামিম ইকবাল ২০০৭ সাল থেকে ২০১৯ সালের সবকটি বিশ্বকাপ খেলেছেন বাংলাদেশের হয়ে। ২০১১ সালে তামিম উইজডেন ক্রিকেটার্স অ্যালমেনাক ম্যাগাজিন কর্তৃক বছরের সেরা পাঁচ ক্রিকেটারের একজন হিসেবে নির্বাচিত হন। গ্রেম সোয়ান ও বীরেন্দ্র শেবাগকে পেছনে ফেলে তামিম এ খেতাব জিতে নেন।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*