শুক্রানুর মান যেভাবে রক্ষা করবেন : ডা. কাজী ফয়েজা আক্তার

আমার পরিচিত এক ভদ্রলোকের কোন সন্তান ছিল না। তিনি একের পর এক স্ত্রীকে ডিভোর্স দিয়েই যাচ্ছিলেন। পরে কাউন্সেলিং করে যখন তার সিমেন পরীক্ষা করা হলো দেখা গেল তার সিমেনে একটা স্পার্মও নাই।অর্থাৎ যে স্ত্রীগুলোকে ডিভোর্স দেওয়া হয়েছে তাদের কোন দোষ ছিল না।

অর্থাৎ পুরুষ ফিজিক্যালি কতোটুকু এ্যাক্টিভ বা সেক্সুয়ালি কতোটুকু এ্যাক্টিভ তার ওপর তার পিতা হওয়া নির্ভর করে না। নির্ভর করে তার সিমেনে স্পার্মের কোয়ালিটি কেমন ও পরিমাণ কেমন তার ওপর। এটা এ্যানালাইসিস করতে হলে তাকে অবশ্যই একটা সিমেন এ্যানালাইসিস করতে হবে।

স্পার্মের কোয়ালিটি কখনো কখনো জেনেটিক ব্যাপারের ওপর নির্ভর করে। সব রোগেরই কিছু জেনেটিক কন্ডিশন আছে। তবে স্পার্মের গুণগত মান রক্ষার জন্য প্রয়োজন সচেতনতা। কিছু নিয়ম মেনে চললে স্পার্মের গুণগত মান রক্ষা করা সম্ভব।

সাধারণত, ধূমপান করলে, মদপান করলে স্পার্মের গুণগত মান নষ্ট হয়। সব সময় গরম আবহাওয়া যুক্ত পরিবেশে কাজ করলেও স্পার্মের ক্ষতি হয়। রোজ গরম পানি দিয়ে গোসল করলে, খুব টাইট অন্তর্বাস পড়লে স্পার্মের কোয়ালিটি নষ্ট করে দেয়।

আবার কিছু সিস্টেমেটিক ডিজিজ আছে- যেমন ছেলেদের ডায়াবেটিস থাকলে, হাইপার টেনশন থাকলে, রেগুলার এমন কোন মেডিসিন ইউস করলে যে মেডিসিনের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া আছে – তাহলেও অনেকের স্পার্ম কোয়ালিটি নষ্ট হয়। একুশে টেলিভিশন

ডা. কাজী ফয়েজা আক্তার

লেখক: ডা. কাজী ফয়েজা আক্তার (এমবিবিএস, এফসিপিএস, এমসিপিএস)। কনসালটেন্ট, ইমপালস হাসপাতাল। ও সহকারী অধ্যাপক, গাইনী, প্রসূতি রোগ বিশেষজ্ঞ ও সার্জন।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *