লকডাউনে যেভাবে খোলা থাকবে হোটেল-রেস্তোরাঁ

করোনা মহামারি মোকাবিলায় সরকার ঘোষিত চলমান বিধিনিষেধের মেয়াদ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হয়েছে। ফলে বিধিনিষেধ চলবে ৩০ মে মধ্যরাত পর্যন্ত। তবে নতুন নির্দেশনায় হোটেল ও রেস্তোরাঁতে সীমিত পরিসরে বসে খাওয়া যাবে বলে জানিয়েছে সরকার।

রোববার (২৩ মে) দুপুর ১২টার দিকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এখন থেকে হোটেল, রেস্তোরাঁ ও খাবারের দোকানে ধারণক্ষমতার অর্ধেক আসন আসন ফাঁকা রেখে গ্রাহকসেবা প্রদান করা যাবে।

এর আগে গতকাল শনিবার রাজধানীর পুরানা পল্টনে সমিতির কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে দেশের সব রেস্টুরেন্ট পুরোপুরি খুলে দেওয়ার দাবি জানায় তারা। বলা হয়, মালিকরা স্বাস্থ্যবিধি মেনেই রেস্টুরেন্ট চালু করতে চান। না হলে থালা-বাটি নিয়ে প্রেসক্লাবের সামনে দাঁড়াবেন বলেও ঘোষণাও দেওয়া হয়।

সংগঠনটির পক্ষ থেকে বলা হয়, সব বিভাগ, জেলা ও উপজেলা শহর মিলে হোটেল-রেস্তোরাঁর সংখ্যা ৬০ হাজার। হোটেল রেস্তোরাঁর সঙ্গে জড়িত ৩০ লাখ শ্রমিক-কর্মচারী। সব মিলিয়ে রেস্তোরাঁ খাতের ওপর নির্ভরশীল মানুষ প্রায় দুই কোটি। বিশাল এই জনগোষ্ঠীর জীবন-জীবিকার বিষয়টি মাথায় রেখে রেস্টুরেন্ট খুলে দেওয়ার দাবি জানানো হয়।

এত দিন হোটেল-রেস্তোরাঁ খোলা থাকলেও কেউ সেখানে বসে খেতে পারবেন না বলে আদেশ জারি ছিল। শুধু খাবার কিনে নিয়ে যাওয়ার সুযোগ ছিল। সেই বিধিনিষেধ আজ শেষ হচ্ছে। এবার ৫০ শতাংশ আসনে গ্রাহক বসানোর সুযোগ দেওয়া হলো।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*