রবি শাস্ত্রীর কোনো প্রতিভাই ছিল না

বিরাট কোহলিদের বর্তমান প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রীকে নিয়ে বো’মা ফাটালেন ভারতের প্রথম ক্রিকেট বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক কপিল দেব। ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা এই অল-রাউন্ডারের মতে, রবি শাস্ত্রীর কোনো প্রতিভা ছিল না। তবুও এত বছর ভারতের হয়ে ক্রিকেট খেলার জন্য শাস্ত্রীর প্রশংসা করেছেন কপিল।

একটি বই উদ্বোধনের অনুষ্ঠানে কপিল বলেন, ‘শাস্ত্রী এমন একজন ক্রিকেটার যার কোনো প্রতিভা ছিল না। কিন্তু ভারতের হয়ে দীর্ঘ দিন খেলেছে। এটা প্রশংসনীয়। সে মাঠে চমক দেখাতে পারত। দুই ধরনের ক্রিকেটার আছে। কেউ হয় প্রচণ্ড প্রতিভাবান অথচ নিজেকে মেলে ধরতে পারে না।

কেউ কেউ প্রতিভা নিয়ে আসে না, অথচ বহু দিন ধরে খেলে যায়। শাস্ত্রীর মধ্যে ভালো কিছু করার জেদ ছিল। সে ছিল দলের সম্পদ। আমরা বলতাম সে যদি ৩০ ওভার খেলে ১০ রান করে, তাতেও কোনো ক্ষতি নেই। ৩০ ওভার খেলাই বিশাল ব্যাপার। বল পুরনো হয়ে গেলে তখন রান করাও সহজ হয়ে যায়।’

১৯৮৩ সালের বিশ্বকাপে শাস্ত্রী ছিলেন তরুণ। তিনি খুব বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি। তবে ১৯৮৫ সালের ক্রিকেটের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে এই শাস্ত্রীই ভারতকে জিতিয়েছিলেন। সেইসঙ্গে তিনি টুর্নামেন্টের সেরা ক্রিকেটারও হয়েছিলেন। কপিল বলেন, ‘আমি শাস্ত্রীকেও বলেছি যে তার কোনো প্রতিভা নেই।

সেই জন্যই আমি তার প্রশংসা করি। সে খুব ভালো অ্যাথল্যাটও নয়। আরেকজন হচ্ছে অনিল কুম্বলে। সেও অ্যাথল্যাট ছিল না! কিন্তু কী অসাধারণ পারফরমান্স। তার থেকে ভালো কেউ নেই।’ ভারতের হয়ে ৮০টি টেস্ট খেলেছেন শাস্ত্রী। করেছেন ৩৮৩০ রান এবং নিয়েছেন ১৫১টি উইকেট। ওয়ানডে ক্রিকেটে ১৫০টি ম্যাচ খেলে করেছেন ৩১০৮ রান এবং নিয়েছেন ১২৯টি উইকেট।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*