রবিনসনের মুসলিমবিদ্বেষী টুইট নিয়ে মুখ খুললেন রুট

মুসলিমবিদ্বেষী ও নারী অবমাননাকর টুইট করায় রাজসিক অভিষেকের পরও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষিদ্ধ হয়েছেন ইংলিশ পেসার অলিভার রবিনসন। শুধু নিষিদ্ধই নয়, তাকে ইংল্যান্ডের ক্যাম্প ছেড়ে চলে যেতেও বলেছে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলশ ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)।

এর ফলে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে এজবাস্টন টেস্টে দেখা যাবে না এই পেসারকে। যেসব টুইটের জন্য নির্বাসিত হলেন রবিনসন, এর সবই ৮-৯ বছর আগের। বৃহস্পতিবার লর্ডসে বল হাতে নেওয়ার পর থেকেই রবিনসনের সেসব বর্ণবাদী টুইট হঠাৎ করেই উদয় হয়।

রবিনসনের ওই টুইটগুলোতে সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে মুসলিমদের সম্পৃক্ততার দাবি করা হয়েছে। এছাড়া এশিয়ান বংশোদ্ভূত ও নারীদের প্রতি ছিল অবমাননাকর মন্তব্য। রবিনসনের সেসব টুইট প্রথমে বিশ্বাসই করেননি ইংল্যান্ডের টেস্ট দলের অধিনায়ক জো রুট।

তার মন্তব্যগুলো কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয় এবং তাকে নিষিদ্ধের সিদ্ধান্ত সঠিক বলে বক্তব্য দিয়েছেন তিনি। প্রথম টেস্ট শেষ হওয়ার পর রোববার জো রুট বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে টুইটগুলো বিশ্বাসই করতে পারিনি প্রথমে। বুঝতে পারছিলাম না, এসব কীভাবে নেওয়া উচিত।

এই ঘটনা আমাদের সবার জন্যই বড় শিক্ষা যে , ক্রিকেটে আমাদের আরও অনেক কিছু করার আছে।নিজেদের শিক্ষিত করে যেতে হবে আমাদের। সবার জন্য আরও ভালো পরিবেশ গড়ে তুলতে হবে। আমাদের যতটা সম্ভব ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে এবং অসাধারণ এই খেলায় সবাইকে স্বস্তির আবহ দিতে হবে।’

তবে রবিনসনের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের প্রশংসায় কার্পণ্য করেননি অধিনায়ক। অভিষেক টেস্টেই ৭ উইকেট ও ৪২ রান করেছেন তিনি। এ বিষয়ে জো রুট বলেন, ’অভিষেকেই ব্যাট হাতে রবিনসন ভালো অবদান রেখেছে, বল হাতে পারফরম্যান্স ছিল দারুণ।

দুর্দান্ত পারফর্ম করে সে প্রমাণ করেছে, যে ইংল্যান্ড টেস্ট দলের সফলতায় ভালো উপকরণ তার আছে। কিন্তু মাঠের বাইরে যা হয়েছে, আমাদের খেলায় তা গ্রহণযোগ্য নয়। আমরা সবাই তা জানি।’

এরপর রবিনসনের পক্ষ নেন অধিনায়ক, ‘সে ড্রেসিংরুমে সরাসরিই কথা বলেছে। সংবাদমাধ্যমেও মুখোমুখি হয়ে ক্ষমা চেয়েছে। তাকে যথেষ্ট অনুতপ্ত হতে দেখেছি। আমরা বুঝতে পেরেছি, তার সেই অনুশোচনা সত্যিই ভেতর থেকে ছিল।’

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*