যে ৫ কারণে হেরেছে ভারত

বুধবার বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের ষষ্ঠ দিনের খেলা শুরুর আগে একটি টুইট করেছিলেন সচিন তেন্ডুলকর। জানিয়েছিলেন, বুধবার প্রথম ১০ ওভার যে দল ভাল খেলতে পারবে, ম্যাচ জেতার সম্ভাবনাও তাদেরই বেশি। দিনের শেষে মাস্টার ব্লাস্টারের কথা অক্ষরে অক্ষরে মিলে গেল।

প্রথম দশ ওভারে সেই যে ভারতের উপর আধিপত্য দেখানো শুরু করল নিউজিল্যান্ড, গোটা দিনে তা কেড়ে নিতে পারল না বিরাট কোহলীর ভারত। আরও একটা ফাইনাল হারলেন কোহলী।ভারতীয় গণমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের মতে গবেষণা অনুযায়ী ৫ কারনে ভারতের এই পরাজয়। পাঠকদের জন্য সেই ৫ কারন তুলে ধরা হল-ঃ

১. টসে হার: টস হারাটা ম্যাচের ফলাফলে কোথাও একটা প্রভাব ফেলে। ক্রমাগত বৃষ্টি ও মেঘাচ্ছন্ন আবহাওয়ায় ইংল্যান্ডের পিচে যে কোনও ক্যাপ্টেন টস জিতে প্রথমে বোলিং করতে চাইবেন। কেন উইলিয়ামসনও তাই করেন। ফলে ভারতকে প্রথম ইনিংসে তুলনায় কঠিন পিরিস্থিতিতে ব্যাট করতে হয়। কোহলি ম্যাচের শুরুতেই জানিয়েছিলেন যে, তিনিও টস জিতলে প্রথমে বোলিং নিতেন।

২. টিম কম্বিনেশন: জোড়া স্পিনারে দল সাজানো এবং প্রথম একাদশে পাঁচজন বিশেষজ্ঞ বোলার নেওয়াটাও কোথাও একটা ম্যাচের ফলাফলে প্রভাব ফেলে। প্রথম ইনিংসে অশ্বিন ১৫ ওভার ও জাদেজা ৭.২ ওভার বল করেন। দু’জনে মিলে তিনটি উইকেট নেন। তবে আবহাওয়া অনুযায়ী একজন বাড়তি পেসার খেলালে বুমরাহর ব্যর্থতা ঢাকা যেতে পারত। অন্ততপক্ষে হনুমা বিহারীর মতো একজন একজন বিশেষজ্ঞ ব্যাটসম্যান খেলালে কঠিন পিচে ব্যাটিং লাইনআপ আরও মজবুত হতো।

৩. প্রকৃতির বাধা: বারবার বৃষ্টি ও মন্দ আলোয় খেলা বন্ধ হওয়া ভারতের প্রথম ইনিংসে প্রভাব ফেলে। ব্যাটসম্যানদের বারবার মাঠ ছাড়তে হয় এবং ফিরে এসে পুনরায় ব্যাট করতে হয়। এতে সেট হওয়ার কাজ কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের তেমনই কঠিন পরিস্থিতির মুখে পড়তে হয় প্রথম ইনিংসে।

৪. ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতা: বড় পার্টনারশিপ গড়তে না পারা যদি ভারতের বড় ইনিংস গড়ার পথে প্রতিবন্ধকতা হয়ে থাকে, তবে ভুল শট নির্বাচন করে উইকেট দিয়ে আসাও টিম ইন্ডিয়ার অল্প রানে গুটিয়ে যাওয়ার অন্যতম কারণ। বিশেষ করে শেষ দিনে ম্যাচ নিরাপদ না করেই বড় শট খেলতে চাওয়ার মাশুল দিতে হয়েছে পন্তদের। তাছাড়া প্রথম ইনিংসে টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা সেট হয়েও উইকেট দিয়ে এসেছেন। কেউই নিজেদের ইনিংসকে টেনে নিয়ে যেতে পারেননি।

৫. বুমরাহর ব্যর্থতা: বুমরাহর উইকেট তুলতে না পারা ভুগিয়েছে ভারতকে। অভিজ্ঞ ইশান্ত ও শামি উইকেট পেলেও দলের সেরা পেসার বুমরাহ উইকেটের মুখ দেখেননি। এমন বড় ম্যাচে দায়িত্ব ভাগ করে নিতে ব্যর্থ হন তিনি। অথচ তাঁর কাছ থেকে প্রত্যাশা ছিল অনেক।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*