মাহমুদউল্লাহর অবসর নিয়ে শুরু হয়েছে নাটকীয়তা

এবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট ম্যাচের তৃতীয় দিনের শেষে হঠাৎ করেই গুঞ্জন ওঠে টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নিচ্ছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অলরাউন্ডার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এই গুঞ্জনের পর থেকেই শুরু হয়েছে নানা নাটকীয়তা। এই ম্যাচের শেষ দিনে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে গার্ড অফ অনার দেয় জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা।

মূলত তারপর থেকেই পরিস্থিতি ঘোলাটে রয়েছে মাহমুদউল্লাহ অবসর নিয়ে। তবে সত্যিই কি মাহমুদউল্লাহরিয়াদ টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন? আপনার কাছে যদি প্রশ্ন করা হয় মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ অবসর নিয়েছেন এর সত্যতা কী? আপনি কি রিয়াদের মুখ থেকে অবসরের কথা এখনো শুনেছেন।

একাধিকবার সাংবাদিকদের সামনে আসলেও এখনো পর্যন্ত টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসরের ব্যাপারে কোন কিছু বলেননি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট ম্যাচে ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলে ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। ম্যান অব দ্য ম্যাচ পুরস্কার গ্রহণের পর কথা বলতে এসে অবসর নিয়ে কোনো কথা বলেননি মাহমুদউল্লাহর রিয়াদ।

এমনকি সাংবাদিকদের জন্য দেওয়া ভিডিও বার্তায় নিজের অবসর নিয়ে কোনো ধারণাই দেন নি মাহমুদউল্লাহ। এমনকি এখনও পর্যন্ত কোন সংবাদমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অবসরের ব্যাপারে মুখ খোলেননি তিনি। তিনি যদি মুখই না খুললেন তাহলে তিনি অবসর নিলেন কিভাবে? তবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এটা শতভাগ নিশ্চিত।

যেটা স্বীকার করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। হঠাৎ করেই মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর ভালোভাবে নেননি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি। ইতিমধ্যেই তিনি জানিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের জন্য বিদায়ী টেস্ট ম্যাচ আয়োজন করতে চায় বিসিবি।

সেইসাথে ঠিক কি কারণে টেস্ট ক্রিকেট থেকে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ অবসর নিচ্ছেন তার সঠিক ব্যাখ্যা জানেন না বিসিবি সভাপতি। তিনি এটাও জানিয়েছেন টেস্ট খেলার জন্য মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের কাছ থেকে লিখিত নিয়েছে বিসিবি। এমনকি নিজ বাসায় মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে একাধিকবার ডেকে এই বিষয়ে আলোচনা করেছেন নাজমুল হাসান পাপন।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*