মাঠে নেমেই ৬ ছক্কার ঝড়ে বিশ্বসেরা ইনিংস বিজয়ের

ডিপিএলে ব্যাট হাতে রানের দেখা পেয়েছেন রনি তালুকদার। সাথে এনামুল হক বিজয়ের ব্যাটিং তাণ্ডবে প্রথম ইনিংসে বড় স্কোর গড়েছে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। ঘরোয়া ক্রিকেটের অন্যতম আসর ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয়েছে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ।

টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করতে নামা প্রাইম ব্যাংকের দুই ওপেনার শুরুটা করেছিলেন ধীরেসুস্থে। ওপেনার তামিম ইকবাল ও রনি তালুকদার ইনিংস উদ্বোধন করত নামলে তামিম রান তোলেন কিছুটা ধীরগতিতে। ওপেনিং জুটিতে স্কোরবোর্ডে ৩৫ রান যোগ করার পর তামিম সাজঘরে ফিরে যান ২০ বল মোকাবেলায় মাত্র ১২ রান করে।

নাবিল সামাদের বলে বোল্ড হওয়া তামিম এই ইনিংসে হাঁকান মাত্র ১টি ছক্কা। তামিম ধীরগতিতে রান তুললেও ব্যাট হাতে আগ্রাসী ছিলেন আরেক ব্যাটসম্যান রনি তালুকদার। অধিনায়ক এনামুল হক বিজয়কে নিয়ে ৭৭ রানের জুটি গড়েন রনি তালুকদার।

এই জুটি অবশ্য বিচ্ছিন্ন হয় ৩১ বল মোকাবেলায় ৩টি ছক্কা ও ৫টি চারের সাহায্যে ৫৩ রান করে রনি তালুকদার প্যাভিলিয়নে ফিরে গেলে। মুক্তার আলির বলে সাব্বির রহমানের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরেন রনি। মোহাম্মদ মিথুনকে নিয়ে আবারও ধীরগতিতে স্কোর বড় করতে থাকেন অধিনায়ক বিজয়।

১৩ বল মোকাবেলায় ১ ছক্কা ১ চারের সাহায্যে ১৮ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে মিথুন বিদায় নিলে বাকি ব্যাটসম্যানরা সুবিধা করতে পারেননি। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৬৯ রানে থামে প্রাইম ব্যাংকের ইনিংস। অধিনায়ক এনামুল হক বিজয় ৪৯ বল মোকাবেলায় অপরাজিত ছিলেন ৬৯ রানে। যেখানে ছিল ৩টি চার ও ৬টি ছক্কার মার।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*