ভারতের পক্ষে আম্পায়ারদের পক্ষপাতের অভিযোগ তুললেন হগ

শ্বাসরুদ্ধকর লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে শেষ হলো ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যকার হাই ভোল্টেজ ম্যাচ। বিশ্বকাপের ফাইনাল কিংবা সেমিফাইনালের চেয়েও দ্বিধাহীনভাবে বেশি উন্মাদনা থাকে এই ম্যাচ নিয়ে।

রোববার (২৩ অক্টোবর) নিজেদের প্রথম ম্যাচে ভারত ও পাকিস্তান মুখোমুখি হয়েছিল পরস্পরের, যে ম্যাচে শেষ হাসি হেসেছেন রোহিত-কোহলিরা। তবে ভারতের অবিশ্বাস্য জয়ের দিনে আম্পায়ারদের বিরুদ্ধে ভারতের হয়ে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ তুলেছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক ক্রিকেটার ব্র্যাড হগ।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য ভারতের প্রয়োজন ছিল ১৬ রান। মোহাম্মদ নওয়াজের করা প্রথম বলেই সাজঘরে ফেরেন হার্দিক পান্ডিয়া। দ্বিতীয় বলে বিরাট কোহলিকে স্ট্রাইকে ফেরান দীনেশ কার্তিক। পরের বল লং অনে ঠেলে দুই রান নেন কোহলি-কার্তিক।

তখন ৩ বলে ভারতের প্রয়োজন ১৩ রান। মোহাম্মদ নওয়াজ করে বসেন নো বল। ফুল টস বলটি এত বেশি উঁচুতে উঠেছিল যে, আম্পায়াররা ছক্কার পর নো বলের সংকেত দেন। তবে হগ প্রশ্ন তুলেছেন, আদৌ এটি নো বল ছিল কি না। তিনি দাবি করেছেন, এই নো বলটি আরও একবার রিভিউ করে দেখা যেত। যদিও টিভি রিপ্লেতে দেখা মনে হয়েছে, নওয়াজের বলটি কোহলির কোমরের ওপরেই ছিল।

পরের বলে ওয়াইড করেন নওয়াজ। ফলে ফ্রি হিট বহাল থাকে। লিগ্যাল ডেলিভারি করার পর বল আঘাত হানে স্টাম্পে, গড়িয়ে গড়িয়ে চলে যায় থার্ড ম্যান রিজিওনে, এই সুযোগে ৩ রান লেগ বাই হিসেবে নেন কোহলি ও কার্তিক। হগ দাবি করেছেন, এই বলটি নাকি ডেড বল ঘোষণা দেয়ার কথা ছিল। যদিও নিজের দাবির পক্ষে কোনো যুক্তি দাঁড় করাননি তিনি।

ওভারের পঞ্চম বলে কার্তিক আউট হলে শেষ বলে প্রয়োজন ছিল ২ রান। রবিচন্দ্রন অশ্বিন তখন ক্রিজে। নওয়াজ আবারও ওয়াইড করে বসেন। এরপর লিগ্যাল ডেলিভারিতে চার হাঁকিয়ে অশ্বিন নিশ্চিত করেন দলের জয়। ৫৩ বলে ৮২ রান করে অপরাজিত থাকা জয়ের নায়ক কোহলির প্রশংসা করে হগ অবশ্য পরে লিখেছেন, শেষ ওভারে বিতর্ক থাকলেও এড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ নেই, একজন গ্রেট, গ্রেট ব্যাটিং প্রদর্শন করল। দারুণ ব্যাট করেছো কোহলি।

Sharing is caring!