ব্রেকিংঃ বাদ পড়ছেন ৪ পান্ডব, কারন জানালেন রাজ্জাক

করোনার এই সময়ে ক্রিকেট এখন অনেক কঠিন। বায়ো-বাবল আর নানা নিয়মকানুনের বেড়াজালে ক্রিকেটারদের প্রাণভরে শ্বাস নেয়ার সুযোগ গেছে কমে। তাই অনেক দলই টানা ব্যস্ততায় ঘুরিয়ে ফিরিয়ে বিশ্রাম দিচ্ছে ক্রিকেটারদের। সামনে জিম্বাবুয়ের মাটিতে সিরিজ। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ শেষ হতে না হতেই হন্তদন্ত হয়ে ছুটতে হবে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের।

যেহেতু প্রতিপক্ষ অপেক্ষাকৃত দুর্বল, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিনিয়রদের বিশ্রাম দেয়াই যায়। সেটা কী হবে? আজ (শনিবার) মিরপুরে গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে নির্বাচক আব্দুর রাজ্জাক ক্রিকেটারদের ছুটির প্রসঙ্গ নিয়ে বলেন, ‘অবশ্যই ভাবছি আমরা। সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হল এখন বায়ো-বাবলে থাকা। যারা জাতীয় দলে রেগুলার তাদের কথা একটু মনোযগ দিয়ে চিন্তা করেন তারা কতদিন বাইরে।

হিসেব করে দেখেন আসলেই কঠিন।’ রাজ্জাক যোগ করেন, ‘আমরা শুধু পারফরম্যান্স দেখতে চেষ্টা করি। কিন্তু এটাও বিবেচনায় রাখা উচিত, যারা ক্রিকেট নিয়ে কথা বলে তাদের এসব হিসেব করা উচিত। কারণ খুবই স্বাভাবিকভাবে এরকম একটা চিন্তা করা হচ্ছে যেন ঘুরিয়ে ফিরিয়ে বিশ্রাম দেয়া যায়। আরেকটা জিনিস হল বোর্ড যদি অনুমোদন দেয় তবে পরিবারকে সাথে রাখা।’

তবে জিম্বাবুয়ের মাটিতে এমন বিশ্রাম দেয়াটা ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে, মনে করেন রাজ্জাক। তিনি বলেন, ‘প্রথমত জিম্বাবুয়ের মাটিতে জিম্বাবুয়ে সহজ প্রতিপক্ষ না, বাংলাদেশের মাটিতে হলে বলতাম তুলনামূলক সহজ প্রতিপক্ষ। জিম্বাবুয়েতে জিম্বাবুয়ে কখনোই সহজ প্রতিপক্ষ না। আমি কোনোভাবেই এর সাথে একমত হব না।’ রাজ্জাকের কথায় বোঝা গেল, সিনিয়র কাউকে বিশ্রাম দেয়ার বিষয়টি এখনও চূড়ান্ত নয়।

ক্রিকেটাররা কেউ বিশ্রামের জন্য আবেদন করেছেন কিনা, সেটিও জানা নেই এই নির্বাচকের। তবে কেউ চাইলে বিবেচনা করা যেতে পারে, এমনটাই মনে করেন তিনি, ‘আপনি যদি অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ডের কথা চিন্তা করেন, তাহলে কিছুটা ইয়ে (সুযোগ) আছে। এরকম যদি আসে তখন হয়তো আমরা বিবেচনা করে দেখব। আর এই বিবেচনার বিষয়টাও সম্পূর্ণ ক্রিকেট বোর্ডের। ক্রিকেট বোর্ড থেকেই সিদ্ধান্তটা আসবে।’ সূত্রঃ ২৪আপডেটনিউজ.কম

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*