বেড়েই চলছে সংক্রমণ, লকডাউন ৯ গ্রাম !

মৃত্যু, শনাক্ত আর সংক্রমণ হার এ তিন সূচকেই আবারও অবনতির দিকে দেশের কোভিড পরিস্থিতি। এদিকে সীমান্তবর্তী জেলাগুলোতে কোভিড পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসছে না কোনোভাবেই।

সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার ৯ গ্রামে আজ থেকে সাত দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছে স্থানীয় প্রশাসন। মোংলায় লকডাউন বেড়েছে আরও ৭ দিন।

রোববার (০৬ জুন) সকালে স্থানীয় প্রশাসন থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহীতেই মারা গেছেন ৬ জন। হাসপাতালগুলোতে রোগীর চাপ বাড়ায় দেখা দিয়েছে শয্যাসংকট।

রাজশাহী: রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার শামীম ইয়াজদানি বলেন, মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে একদিনে আরও ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে শুধু চাঁপাইনবাবগঞ্জেরই ৩ জন।

রাজশাহী ১, নাটোরের ১ এবং চুয়াডাঙ্গার একজন। একদিনের ৩৬৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছেন ১৮৬ জন। আক্রান্তের হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫০ শতাংশে। ২৩২ শয্যার বিপরীতে হাসপাতালে ভর্তি আছেন ২৩৫ জন রোগী।

নাটোর: নাটোরে করোনার সংক্রমণ আবারও উর্ধ্বমুখী। জেলায় একদিনে করোনা সংক্রমণের হার বেড়েছে দ্বিগুণেরও বেশি। এই হার ২২ ভাগ থেকে বেড়ে ৫১ ভাগে ঠেকেছে।

পাশাপাশি হাসপাতালেও বাড়ছে রোগীর সংখ্যা। ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। ৪১ জনের নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত হয়েছেন ২১ জন। এ অবস্থায় শহরের প্রবেশের ৪টি পয়েন্টে পুলিশের চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশি জোরদার করা হয়েছে বলে জানান পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা।

দিনাজপুর: সীমান্তবর্তী দিনাজপুরে করোনা সংক্রমণের হার বেড়েই চলেছে। দিনাজপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৬৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় করোনায় আক্রান্ত ৪০ জন। মৃত্যুবরণ করেছেন ২ জন।

নওগাঁ: সবশেষ পরীক্ষায় সংক্রমণের হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৯ শতাংশে। করোনার উপসর্গ নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ২ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানান নওগাঁ সিভিল সার্জন ডা. মো.আবু হানিফ।

চুয়াডাঙ্গা সংক্রমণের নিয়ন্ত্রণে ভারত সীমান্তবর্তী চুয়াডাঙ্গার দামুরহুদা উপজেলার ৯টি গ্রামে রোববার থেকে সাত দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছে প্রশাসন। জনসাধারণকে সচেতন করতে এবং চলাচল নিয়ন্ত্রণে চলছে মাইকিং। সেই সঙ্গে হাসপাতালগুলোতেও বাড়ানো হয়েছে তৎপরতা। ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় নজরদারি বাড়ানো হয়েছে বলে জানায় প্রশাসন।

মোংলা: সংক্রমণের ভয়াবহতায় মোংলায় দ্বিতীয় দফায় লকডাউন আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হয়েছে। জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৮ জনের মধ্যে ৩৪ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ২ জন। একদিনের ব্যবধানে আক্রান্তের হার ৭০ শতাংশে এসে দাঁড়িয়েছে বলে জানান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিচালক পরিচালক ডা. জিবেতোষ বিশ্বাস।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণের হার বেড়ে কুড়িগ্রামে ৪৫ শতাংশ, ঠাকুরগাঁয়ে ২৯ শতাংশ, যশোরের ২৩ শতাংশ, সাতক্ষীরায় ৪৭ শতাংশ, বাগেরহাটে ৪৫ শতাংশে ঠেকেছে।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*