বিয়ের আগে যে ভুল করা মানা!

বর্তমানে অ্যারেঞ্জড ম্যারেজের চেয়ে লাভ ম্যারেজের সংখ্যা বেশি। এক্ষেত্রে নারী-পুরুষ একে অন্যকে ভালোভাবে জেনে বুঝে ও ভালোবেসে তবেই বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন।যদিও প্রেমের সম্পর্কের মধ্য দিয়ে যাওয়া এক বিষয় আর বিয়ে করে এক ছাদের তলায় দুজনে সংসার করার বিয়টি পুরোপুরিই ভিন্ন।

কারণ সংসার টিকিয়ে রাখতে ও দাম্পত্য ভালোবাসা বজায় রাখতে দুজনের অবদানই গুরুত্বপূর্ণ। তাই বিয়ের সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে একবারবা দুবার নয় বরং একাধিকবার ভাবুন।আসলে বিয়ে শুধু দুজনের মধ্যেই হয় না, এক্ষেত্রে পরিবারের গুরুত্বও অধিক। বিয়ের জন্য দুই পরিবারের সদস্যদেরও মতামত নেওয়া জরুরি।

পারিবারিকভাবে কিংবা প্রেমের বিয়েই হোক না কেন পাত্র ও কনের উচিত বিয়ের আগে কয়েকটি ভুল না করা। বিয়ের আগের কয়েকটি ভুল বর-কনে এমনকি তাদের পরিবারের উপরও চাপ বাড়াতে পারে। তাই বিয়ের আগে কোন ভুল করতে মানা জেনে নিন-

নিজ পরিবারের সঙ্গে বিরোধে জড়াবেন নালাভ ম্যারেজের ক্ষেত্রে পরিবারিক ঝামেলা হতেই পারে। এক্ষেত্রে দুই পরিবারের মধ্যে কারও হয়তো একে অপরকে পছন্দ নাও হতে পারে। এমন ক্ষেত্রে একটু সময় দেওয়া ছাড়া কোনো উপায় নেই।

এসব বিষয় নিয়ে যদি আপনি সঙ্গী কিংবা পরিবারের সঙ্গে বিরোধে জড়ান তাহলে বিয়ে আরও মুশকিল হয়ে উঠবে। বিয়ের আগে এ ধরনের ভুল একেবারেই করবেন না। বরং পরিবারকে মানানোর চেষ্টা করুন।

একে অন্যের পরিবারকে দোষারোপ করবেন নাবর হোক বাকনে অনেকেই বিয়ের আগে থেকেই একে অন্যের পরিবারকে দোষারোপ করেন। দেখা যায়, সম্পর্কে থাকা দুজন মানুষ একে অপরের পরিবারকে সম্মান করছেন না।

এক্ষেত্রে সম্পর্ক যতই গভীর হোক না কেন সঙ্গীর পরিবারকে নিয়ে খারাপ মন্তব্যের কারণে সমস্যা হতে পারে তাই প্রথম থেকেই সতর্ক থাকুন।বিয়ের আগে সঙ্গীর পরিবার নিয়ে তার সঙ্গে কোনো খারাপ কথা নয়। বরং তাদের সম্পর্কে ভালো কথা বলুন। সঙ্গীকে বুঝিয়ে দিন আপনি তাকে ও তার পরিবারকেও ভালোবাসেন।

বিয়ের রীতি নিয়ে ঝামেলার সৃষ্টি করবেন নাবিয়ের রীতিনীতিতে অঞ্চলভেদে পার্থক্য থাকতেই পারে। বিয়ের এই নিয়ম সম্পর্কে একমত হওয়াও জরুরি। এক্ষেত্রে দুই পরিবার একসঙ্গে বসে আগে থেকেই কথা বলা ভালো। তাহলে কোনো বিরোধের সম্ভাবনা থাকবে না।

সঙ্গীকে দোষারোপ করবেন নাবিয়ের আগে নানা ধরনের চাপ থাকতে পারে, তাই বলে কখনো সঙ্গীকে কোনো বিষয় নিয়ে দোষারোপ করবেন না। এতে সম্পর্কে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে।

Sharing is caring!