বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরু জনস্বাস্থ্যের জন্য একটি বিশাল ঝুঁকি!

রানি বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরু হতে পারে। গরুটির প্রতি মানুষের আ’গ্রহ দিন দিন বাড়ছে! যার ফলে বিষয়টি জনস্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁ’কির কারণও হতে পারে। রানিকে নিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে এই কথা বলা হয়েছে।প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশে ২৬ ইঞ্চি লম্বা গরুটি দেখতে হাজার হাজার মানুষ ভিড় করছেন।

রানি দেশের ঘনবসতিযুক্ত রাজধানী ঢাকার বাইরে শিখর এগ্রো ফার্মে বাস করে এবং তার মালিকরা দাবি করেছেন যে, এটি বর্তমানে গিনিস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে সবচেয়ে ক্ষুদ্রতম হিসাবে স্বীকৃত গরুর চেয়েও ৪ ইঞ্চি ছোট। রানির প্রতি আগ্রহটি বোধগম্য, তবে এটি একটি বি’পজ্জ’নক সময়ে আসে।

বাংলাদেশের কো’ভিড -১৯ সং’ক্র’মণের মা’ম’লা আগের চেয়ে বেশি। গত ৬ জুলাই প্রথমবারের মতো ১১ হাজারেরও বেশি শনা’ক্ত হয়েছেন। শিখর অ্যাগ্রো ফার্মের ব্যবস্থাপক হাসান হাওলাদার এএফপিকে বলেন, আগের তিন দিনে ১৫ হাজারেরও বেশি লোক রানিকে দেখতে এসেছিল। ‌’করো’নাভাই’রাস লকডাউন সত্ত্বেও লোকেরা দীর্ঘ দূরত্ব থেকে আসে,’ তিনি বলেন, ‘বেশিরভাগই রানির সাথে সেলফি তুলতে চায়।’

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, বাংলাদেশের প্রায় সাড়ে ১৬ কোটি নাগরিকের মধ্যে প্রায় ৪২ লাখ পুরোপুরি টিকা পেয়েছেন। অন্যান্য এশীয় দেশগুলোর মতো, বাংলাদেশেও মূলত ক’রোনার আরও সং’ক্রামক ডেলটা ভ্যা’রিয়েন্টের কারণে ঝুঁ’কিতে আছে বলে মনে করা হয়। বাংলাদেশের প্রতিবেশী দেশ ভারতে মে এর মাঝা’মাঝি সময়ে এক দিনে ৪ লাখ ৩ হাজারের বেশি শনা’ক্ত হওয়ার রে’কর্ড করেছিল।

রাজনৈতিক সমাবেশ ও কুম্ভ মেলার মতো সুপার-স্প্রেডার ইভেন্টগুলি মে মাসে ভারতের বি’পর্যয়ে’র দ্বিতীয় তর’ঙ্গের জন্য দায়ী করা হয়েছে। রানির মালিকরা তাকে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষুদ্রতম গরু হিসাবে স্বীকৃতির প্রত্যাশায় গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে আবেদন করেছেন। এএফপি অনুসারে এই ছোট গরুটি ‘জেনেটিক ইনব্রিডিং’ এর ফল এবং এটি সম্ভবত বর্তমান আকারেই থাকবে। সূত্র : সিনেট।

Sharing is caring!