বিশ্বকাপের সবচেয়ে তরুণ দল বাংলাদেশ; সবচেয়ে বুড়ো গেইল

আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে যেখানে প্রায় সব দেশই দল গঠনে প্রাধান্য দিয়েছে অভিজ্ঞতাকে সেখানে বাংলাদেশ দলে প্রাধান্য পেয়েছে তরুণরা। টাইগারদের বিশ্বকাপ দলে আছেন ৭ ক্রিকেটার যারা প্রথমবার খেলতে যাবেন কোন বিশ্বকাপে। তাই স্বাভাবিকভাবেই এটা বলা যায় বাংলাদেশের দলই বিশ্বকাপের সবচেয়ে তরুণ দল।

বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকরা অন্য দলগুলোর ক্রিকেটারদের বয়সের গড়ের পরিসংখ্যান দেখলেও সেটাই প্রমাণ হয়।এবারের বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করা ১৬ দেশের মধ্যে সবচেয়ে কম বয়সের গড় বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের। দলে তরুণদের আধিক্য এতটাই যে, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের পরে বয়সে সবচেয়ে সিনিয়র ক্রিকেটার সৌম্য সরকার। সৌম্যর বয়স ২৮ বছর।

আর বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের গড় বয়স মাত্র ২৬.৮৭ বছর। বাংলাদেশ দলে আছেন সর্বশেষ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী দুই ক্রিকেটার। ২০ বছরের শরীফুল ইসলামের সঙ্গে থাকছেন ২১ বছর বয়সী শামীম পাটোয়ারী। প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পাওয়া মোহাম্মদ নাঈম ও আফিফের বয়স ২৩ বছরের নিচে।

বিশ্বকাপ দলে জায়গা পাওয়া আরেক অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের বয়সও ২৫ পেরোয়নি। লিটন দাস, মেহেদী হাসান, নাসুম আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান ও তাসকিন আহমেদের বয়স ২৬ বছর। দলে তিন খেলোয়াড়ের বয়স ৩০ বছর ছাড়িয়েছে–সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ।

বাংলাদেশের মতো অন্য কোন দেশেরই এতটাও কম নেই। তবে গ্রুপ পর্বে খেলা দলগুলোই আছে এই তালিকায়। এরপর বেশি বয়স আছে আয়ারল্যান্ডের ক্রিকেটারদের। তাদের বয়সের গড় ২৭.১৩। এরপর বয়সের বিচারে বেশি নামিবিয়ার। গড় গড় ২৭.২৬। চতুর্থতে আছে শ্রীলঙ্কা, বয়সের গড় ২৭.২৮। বাছাই পর্বের আর দুই দল স্কটল্যান্ড ও ওমানের বয়স অবশ্য বেশি। স্কটল্যান্ডের গড় ২৯.৮২ হলেও বয়সের গড়ে সবচেয়ে এগিয়ে আছে ওমান। তাদের বয়সের গড় ৩২.৫৩।

ওমানের পরে আছে ইংল্যান্ড। ইংলিশ ক্রিকেটারদের গড় বয়স ৩১.২৬ বছর। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলও বেশ অভিজ্ঞ। দলে থাকা গেইল-ব্রাভোদের গড় বয়স ৩১.১৩ বছর। অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের গড় বয়সও ৩০ বছরের কিছু বেশি।

বয়সে ভারত ও নিউজিল্যান্ড অবশ্য অস্ট্রেলিয়া ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের তুলনায় কিছুটা পিছিয়ে। এ দুই দলের ক্রিকেটারদের গড় বয়স ২৯ বছর। বিশ্বকাপের বাকি দলগুলোর মধ্যে পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের গড় বয়স ২৭.৩৩ বছর এবং দক্ষিণ আফ্রিকার ২৯ বছরের বেশি।

এবারের বিশ্বকাপে সবচেয়ে কম বয়সী ক্রিকেটার হলেন আফগানিস্তানের ওপেনার রাহমানুল্লাহ গুরবাজ। তার বয়স ১৯ বছর ২৯০ দিন। এই তালিকায় তিনজনের ভেতর আছেন পাকিস্তানের ওয়াসিম জুনিয়র ও বাংলাদেশের শরিফুল ইসলাম। দুজনরই বয়স ২০ বছর।

বিশ্বকাপে সবচেয়ে বুড়ো ক্রিকেটার ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইল। তার বয়স ৪২ বছর। সর্বোচ্চ বয়সের তালিকায় তিনজনের ভেতর আছেন নেদারল্যান্ডসের রায়ান টেন ডেসকাটে ও পাকিস্তানের মোহাম্মদ হাফিজ। দুজনের বয়সই ২১।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*