বিদেশে খাদ্য সংকট দেখা দিলে এখন সহায়তা করে বাংলাদেশ

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর আয়োজিত তিন দিনব্যাপী কৃষি প্রযুক্তিমেলা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলার মেহনতি কৃষকদের মুখে হাসি ফুটিয়েছেন। তার যোগ্য উত্তরসুরী প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্ব আর তার সরকারের প্রচেষ্টায় বাংলাদেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ দেশ।

বিদেশে খাদ্য সংকট দেখা দিলে এখন সহায়তা করে বাংলাদেশ। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হয়েছে। এবার ডিজিটাল ভিলেজ প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এমএম সামিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, করোনার কারণে বিশ্ব যখন বিপর্যস্ত ঠিক তখন ১৭ কোটি মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য সচেষ্ট ছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

কোনো জমি যেনো অনাবাদি না থাকে সেই ঘোষণা তিনি দিয়েছেন। কৃষকরা জমিতে আবাদ করতে পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। শুক্রবার (২৫ মার্চ) পলক বলেন, বিএনপি জোট সরকারের সময় ১৮ জন কৃষককে জীবন দিতে হয়েছে। এখন সারের জন্য কৃষককে নেতাদের বাড়ি বাড়ি ঘুরতে হয় না। বর্তমান সরকার কৃষকদের বিনামূল্যে সার দিয়েছে। বিগত সরকারের সময় বিদ্যুতের দাবিতে মিছিল করতে হয়েছে।

সিংড়া উপজেলার মাত্র ৪০ ভাগ বাড়িতে বিদ্যুৎ ছিল। এখন সিংড়ার শতভাগ পরিবার বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত। কৃষিতে সরকার ভর্তুকির ব্যবস্থা করেছেন। ৬২ হাজার পরিবার কৃষিকার্ড পেয়েছেন। ৫৮ হাজার কৃষক পরিবারকে ১০ টাকায় ব্যাংক একাউন্ট করে দিয়েছেন। সারাদেশের ১ কোটি কৃষককে ব্যাংক একাউন্ট করে দিয়েছেন।

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, সর্বহারা, সন্ত্রাসীদের চাঁদা দিতে হতো। ডাকাতদের হামলায় সাধারণ মানুষের ঘুম হারাম ছিল। ১৩ বছরের উন্নয়ন, সুশাসনের বিচার জনগণের বিবেকের আদালতে ছেড়ে দিলাম। ৩৭ বছরের সিংড়া এবং ১৩ বছরের সিংড়ার পার্থক্য বিবেচনা করবেন। ১০০ কিলোমিটার খাল খননের মাধ্যমে সরকার কৃষকদের উন্নয়ন করেছে। কৃষকদের উন্নয়নে ৪০০ কোটি টাকা ব্যয়ে চলনবিল প্রকল্প হাতে নিয়েছে।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*