বিদেশি ক্রিকেটারদের হুমকি দিচ্ছে ভারত!

আগামী শুক্রবার (৬ আগস্ট) থেকে শুরু হচ্ছে কাশ্মীর প্রিমিয়ার লিগ (কেপিএল) ক্রিকেট। পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে এবারই প্রথমবারের মতো হবে কোনো ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। যেখানে রয়েছেন ইংল্যান্ড, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার ছয়জন বিদেশি ক্রিকেটার।

তারা হলেন শ্রীলঙ্কার সাবেক অধিনায়ক তিলকারাত্নে দিলশান, দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক তারকা ব্যাটসম্যান হার্শেল গিবস, ইংল্যান্ডের ম্যাট প্রায়র, মন্টি প্যানেল, ফিল মাস্টার্ড ও ওয়াইজ শাহ। টুর্নামেন্টের ছয় দলে খেলবেন এ ছয় বিদেশি ক্রিকেটার।

কিন্তু কাশ্মীরের লিগে তাদের অংশগ্রহণ মানতে পারছে না ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)- এমন অভিযোগ তুলেছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক রশিদ লতিফ ও দক্ষিণ আফ্রিকান তারকা হার্শেল গিবস। কাশ্মীরের লিগে খেলবেন বিধায় নানাবিদ হুমকিও পাচ্ছেন বলে লিখেছেন গিবস।

শুক্রবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে রশিদ লতিফ লিখেছেন, ‘বিসিসিআই বিভিন্ন ক্রিকেট বোর্ডকে হুমকি দিচ্ছে, তারা যদি সাবেক ক্রিকেটারদের কাশ্মীরে খেলার অনুমতি দেয়, তাহলে তাদের আর ভারতে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। গিবস, দিলশান, প্যানেসারসহ অনেকেই কাশ্মীরের লিগে খেলবেন।’

এ বিষয়টি নিশ্চিত করে কেপিএলের এক প্রতিনিধি বলেছেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকা ও ইংল্যান্ডের ক্রিকেট বোর্ডকে তাদের সাবেক খেলোয়াড়দের আটকানোর কথা বলেছে বিসিসিআই। বোর্ডগুলো বিসিসিআইয়ের চাওয়া মেনেও নিয়েছে। তাই এখন বিদেশি ক্রিকেটারদের বদলে স্থানীয় ক্রিকেটারদের নিতে হবে।’

তবে মুজাফফরবাদ টাইগারসের মালিক আরশাদ খান তানোলি জানিয়েছেন, পুরো টুর্নামেন্টেই খেলবেন তাদের দলের লঙ্কান তারকা তিলকারাত্নে দিলশান। এ সিদ্ধান্তের মাধ্যমে বিসিসিআই ও ভারতকে চপেটাঘাত করেছেন দিলশান- এমনটাই বলেছেন তানোলি।

এদিকে চুপ করে নেই হার্শেল গিবসও। তিনি এক হাত নিয়েছেন বিসিসিআইয়ের। টুইটারে লিখেছেন, ‘পাকিস্তানের সঙ্গে নিজেদের রাজনৈতিক বিষয় এখানে আনা পুরোপুরি অপ্রাসঙ্গিক কাজ বিসিসিআইয়ের। তারা আমাকে কেপিএলে যাওয়া থেকে আটকাতে চাচ্ছে। পাশাপাশি হুমকি দিচ্ছে আর কখনও ভারতে যেতে দেবে না।’

উল্লেখ্য, কেপিএলের ছয় দল হলো ওভারসিজ ওয়ারিয়র্স, মুজাফফরবাদ টাইগার্স, রাওয়ালকোট হকস, বাঘ স্ট্যালিয়নস, মিরপুর রয়্যালস এবং কোটলি লায়নস। এ ছয় দলের অধিনায়ক যথাক্রমে ইমাদ ওয়াসিম, মোহাম্মদ হাফিজ, শহিদ আফ্রিদি, শাদাব খান, শোয়েব মালিক ও কামরান আকমল।

প্রতিটি দলের পাঁচ জন করে কাশ্মীরের খেলোয়াড় থাকবে। ২০২০ সালের ডিসেম্বরে কাশ্মীরের পার্লামেন্টারি স্পেশাল কমিটির চেয়ারম্যান শেহরিয়ার খান কেপিএলের ঘোষণা দেন। আজাদ কাশ্মীরের প্রেসিডেন্ট মাসুদ খানকে কেপিএলের চিফ প্যাট্রন করা হয়েছে।

পাকিস্তানের সাবেক পেসার ওয়াসিম আকরাম এই লিগে প্রতিষ্ঠা সহ-সভাপতি এবং তারকা অলরাউন্ডার শহিদ আফ্রিদি রয়েছেন শুভেচ্ছাদূত হিসেবে। টুর্নামেন্টের সবগুলো ম্যাচ হবে ১৮ হাজার ধারণক্ষমতাসম্পন্ন মুজাফফরবাদ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*