বাবার জন্য নারী ও কফি চেয়েছিলেন নেইমার!

বার্সেলোনার সঙ্গে নেইমারের চুক্তি নিয়ে আবারও আলোচনা-সমালোচনা তুঙ্গে। এবার বেরিয়ে এল চুক্তিতে জুড়ে দেওয়া এক ‘কালো শর্তের’ খবর। নেইমার নাকি তার বাবার জন্য লন্ডনের হোটেলে পর নারী, বিনা মূল্যে কফি এবং ব্রাজিল দলের খেলা দেখতে যাওয়ার জন্য বিমান চেয়েছিলেন! এসবই নাকি চুক্তির শর্তে জুড়ে দেওয়া হয়েছিল। বার্সেলোনা এসব শর্ত পূরণের প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পরই নাকি চুক্তিতে সই করেন নেইমার।



গুরুতর অভিযোগ করেছেন নেইমারের সাবেক ক্লাব সান্তোস এফসির সাবেক সভাপতি লুইস আলভারো ডা অলিভিয়েরা রিবেইরো। ২০১৩ সালে নেইমার যখন ব্রাজিলিয়ান ক্লাব সান্তোস ছেড়ে বার্সেলোনায় যোগ দেন, তখন এই লুইস আলভারো ডা অলিভিয়েরা রিবেইরোই ছিলেন সান্তোসের সভাপতি। তিনি অবশ্য তখনই বার্সেলোনার সঙ্গে নেইমারের বিতর্কিত চুক্তি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। তবে চুক্তিতে নেইমারের বাবার জন্য ‘পর নারী ও বিনা মূল্যে কফি’ বিতর্কিত শর্ত জুড়ে দেওয়ার অভিযোগটি সামনে আনলেন এবারই প্রথম।

লুইস আলভারো রিবেইরোর অভিযোগ ক্লাব বার্সেলোনাকে নেইমারের বাবা এবং এজেন্ট নেইমার সান্তোস সিনিয়রই চরম বিতর্কিত এবং উদ্ভূত ঐ শর্তগুলো জুড়ে দেন। নেইমার সিনিয়র নাকি বার্সেলোনাকে সরাসরিই বলেন, তার জন্য লন্ডনের হোটেলে পর নারী, বিনা মূল্যে কফি এবং তার জন্য ব্রাজিলের খেলা দেখতে যাওয়ার ব্যবস্থা করা হলেই কেবল তার ছেলে চুক্তিতে সই করবে, নতুবা নয়। রিয়ালকে টেক্কা দিতে বার্সেলোনার তত্কালীন সভাপতি সান্দ্রো রাসেল সব শর্তই মেনে নেন। মানে বার্সেলোনা সব শর্ত মেনে নেওয়ার পরই চুক্তিপত্রে সই করেন নেইমার।



লুইস আলভারো রিবেইরো বলেছেন, ‘নেইমারের চুক্তিতেই বলা ছিল, ওর বাবার জন্য লন্ডনের পিকাডিলির হোটেলে নিয়মিত নারীসঙ্গী দিতে হবে। কারণ নেইমারের বাবা সবকিছু পেতে চেয়েছিলেন। এছাড়া বিনা মূল্যের কফি এবং নিয়মিত ব্রাজিলের খেলা দেখতে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করে দেওয়ার দাবিও জুড়ে দেওয়া হয়। বার্সেলোনা নেইমারের বাবার জন্য আলাদা একজন লোকই ঠিক করেন, যিনি সব চাহিদা মিটিয়ে দিতেন।’ নেইমারের বাবার সমালোচনা সান্তোসের সাবেক সভাপতি এটাও বলেছেন, ‘ওর কাছে টাকার অভাব ছিল না। কিন্তু কোন দিন ও কফির দাম দেয়নি। অন্তত ২০০ বার ওর কফির দাম আমি মিটিয়েছি।’

Sharing is caring!