বলিউড সুন্দরী ও ক্রিকেটারদের যুগলবন্দী

বলিউডের সংগে ক্রিকেটারদের বৈবাহিক বন্ধনে জড়িয়ে পড়ার দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে। ভারতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মনসুর আলি খান পতৌদি ও শর্মিলা ঠাকুর-এর বিয়ে দিয়ে এর সূত্রপাত। ১৯৬৮ সালে নবাবের সংগে ঠাকুর পরিবারের মেয়ের বিয়ে হয়। তাঁদের দাম্পত্য জীবনে রয়েছে তিন সন্তান (সাইফ আলি খান, সোহা আলি খান ও সাবা আলি খান)।

বিরাট কোহলি ও অনুষ্কা শর্মা: এদের প্রেম থেকে বিয়ে পর্যন্ত যে পরিমাণ আলোচনা হয়েছে, তা এর আগে সম্ভবত আরও কোনও বলিউডের ক্রিকেট কানেকশন নিয়ে হয়নি। ২০১৩ সালে একটি শ্যাম্পুর বিজ্ঞাপন করতে গিয়ে বিরুষ্কার আলাপ। তারপর দীর্ঘ চার বছর ডেটিং করার পর ২০১৭ সালে তাঁরা বিয়ে করেন। ভারতে নয়, সুদূর ইতালিতে চার হাত এক হয়েছিলো। এখন তাঁদের ঘর আলো করে রেখেছে মেয়ে ভামিকা।

রবি শাস্ত্রী ও অমৃতা সিং: ১৯৮৩ সালের বিশ্বকাপ জয়ী ভারতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার ও অধুনা জাতীয় দলের হেড কোচ রবি শাস্ত্রী। রূপালি পর্দার ঝড় তোলা নায়িকা অমৃতা সিংয়ের প্রেমে হাবুডুবু খেয়েছিলেন রবি। তাঁদের সম্পর্ক নিয়েও সেসময় প্রচুর আলোচনা হয়। ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদের জন্য একাধিক ফটোশুটও করেন তাঁরা। জানা যায়, ১৯৮৬ সালে তাঁরা এনগেজমেন্টও সেরে নেন। কিন্তু রবি-অমৃতার বিয়ে হয়নি কখনও।

নীনা গুপ্তা এবং স্যার ভিভ রিচার্ডস: আটের দশকে দেশের সফল অভিনেত্রী নীনা গুপ্তার সংগে সম্পর্ক হয়েছিলো ওয়েস্ট ইন্ডিজের কিংবদন্তি ক্রিকেটার স্যার ভিভ রিচার্ডসের। ভিভ তাঁর স্ত্রী মারিয়মকে ডিভোর্স দিতে পারেননি, কিন্তু নীনার সংগে সম্পর্কে থাকাকালীন তাঁদের এক কন্যা সন্তান হয়। যিনি এখন বিখ্যাত ফ্যাশন ডিজাইনার মাসাবা গুপ্তা। বলিউডের প্রথম কুমারী মা নীনা গুপ্তা। মাসাবাকে তিনি একাই বড় করেছেন।

মোহম্মদ আজহারউদ্দিন ও সংগীতা বিজলানি: ভারত ক্রিকেট দলের আরেক সাবেক অধিনায়ক ও ব্যাটসম্যান মোহম্মদ আজহারউদ্দিনও নায়িকার প্রেমেই পড়েছিলেন। আজহারউদ্দিন ও সংগীতার ব্যক্তিগত জীবন এবং সম্পর্ক নয়ের দশকে ছিলো আলোচনার বিষয়। ১৯৯৬ সালে তাঁরা বিয়ে করেন। ২০২১ সালে তাঁদের দীর্ঘ বৈবাহিক জীবনে ছেদ পড়ে।

রীনা রায় এবং মহসিন খান: আটের দশকে সাফল্যের চূড়ায় ছিলেন অভিনেত্রী রীনা রায়। সেই সময় অনেকের সংগেই তাঁর সম্পর্ক নিয়ে গুঞ্জন শোনা যায়। কিন্তু সাবেক পাকিস্তানি ক্রিকেটার মহসিন খানের প্রেমে পড়ে রীনা অভিনয় ছাড়েন। দু’জনে লুকিয়ে বিয়েও করেন। কিন্তু সেই সম্পর্ক দীর্ঘস্থায়ী হয়নি। রীনা-মহসিনের বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে যায়। তাঁদের একটি কন্যা সন্তান হয়। যাঁর নাম জান্নাত।

গ্যারি সোবার্স ও অঞ্জু মহেন্দ্রু: সাতের দশকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের তারকা অলরাউন্ডার স্যার গ্যারি সোবর্সের সংগে ভারতীয় অভিনেত্রী অঞ্জু মহেন্দ্রুর সম্পর্ক নিয়ে বেশ জল্পনা হয়েছিলো। শোনা যায় তাঁরা নাকি সেসময় ডেটিং করেছিলেন।

হরভজন সিং ও গীতা বসরা: ভারতের অন্যতম সেরা স্পিনার হরভজন সিংও বিয়ে করেন এক অভিনেত্রীকে। তাঁর জীবনসংগিনী গীতা বসরা। দীর্ঘদিনের প্রেম-ভালবাসার পর্বের পর ২০১৫ সালে তাঁরা সাত পাকে বাঁধা পড়েন।

যুবরাজ সিং ও হেজেল কিচ: জোড়া বিশ্বকাপ জয়ী সাবেক অলরাউন্ডার যুবরাজ সিংও রয়েছেন এই তালিকায়। হিন্দি ছবির অভিনেত্রী হেজেল কিচ-এর সংগে তিন বছর ডেটিং করেন তিনি। তারপরেই যুবির বিয়ের প্রস্তাবে সম্মতি দেন হেজেল। ২০১৬ সালে যুবি-হেজেলের বিয়ে সম্পন্ন হয়।

জাহির খান ও সাগরিকা ঘাটগে: ভারতের অন্যতম সেরা পেসার জাহির খান চুটিয়ে প্রেম করেছেন হিন্দি ও মারাঠি অভিনেত্রী সাগরিকা ঘাটগের সংগে। ২০১৭ সালে দেশের বিশ্বকাপ জয়ী পেসার ‘চক দে ইন্ডিয়া’ খ্যাত সাগরিকাকে বিয়ে করেন।

হার্দিক পাণ্ডিয়া ও নাতাশা স্ট্যানকোভিচ: দেশটির তারকা অলরাউন্ডার হার্দিক পাণ্ডিয়া বলি-ক্রিকেট যোগের সাম্প্রতিক সংযোজন। গতবছর সার্বিয়ান ডান্সার ও অভিনেত্রী নাতাশা স্ট্যানকোভিচকে বিয়ে করেন তিনি। নাতাশা বলিউডেও কাজ করেছেন। হার্দিক-নাতাশার একটা ফুটফুটে সন্তানও রয়েছে। তার নাম অগস্ত্য।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*