ফাইনালে মাঠে নামার আগে ব্রাজিলকে নিয়ে অবিশ্বাস্য মন্তব্য করলো আর্জেন্টিনার ফুটবলার

সকালে কলম্বিয়াকে উড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে উঠেছে আর্জেন্টিনা। টাইব্রেকার জিতে ফাইনালে পা রাখা তো হলো। কিন্তু ফাইনাল তো আর্জেন্টিনার জন্য নতুন কিছু নয়। তাদের ট্রফির অপেক্ষা কি শেষ হবে? সেমি-ফাইনাল জয়ের নায়ক এমিলিয়ানো মার্তিনেসের বিশ্বাস, তারা পারবেন। সেই বিশ্বাসের মূল ভিত্তি, একজন লিওনেল মেসি।

দেশের মাঠে যদিও ব্রাজিলকে হারানো কঠিন, তবু মেসি আছেন বলেই ভরসা রাখছেন মার্তিনেসরা।আপাতত অবশ্য মেসির চেয়ে আলোচনা বেশি এই মার্তিনেসকে নিয়েই। কিছুদিন আগেও দলের প্রথম পছন্দের গোলরক্ষক ছিলেন না তিনি। ছিল না আন্তর্জাতিক ম্যাচের অভিজ্ঞতা। সেই তিনিই এখন ফুটবল বিশ্বের আগ্রহের কেন্দ্রে।

আর্জেন্টিনার ট্রফির স্বপ্ন জিইয়ে রাখার নায়ক।আর্জেন্টিনার প্রখম পছন্দের গোলরক্ষক ফ্রাঙ্কো আরমানি কোভিড আক্রান্ত হওয়াতেই সুযোগটি মিলেছিল মার্তিনিসের। গত মাসের শুরুতে তার আন্তর্জাতিক অভিষেক হয় চিলির বিপক্ষে ম্যাচ দিয়েই। দ্রুতই কোচ লিওনেল স্কালোনির আস্থা অর্জন করে তিনি ধরে রাখেন জায়গা।

এরপর এলো তার আলোয় আসার মুহূর্ত। কোপা আমেরিকার সেমি-ফাইনালে কলম্বিয়ার তিনটি শট ফিরিয়ে আর্জেন্টিনাকে তুলে নিলেন তিনি ফাইনালে।ম্যাচের পর আনন্দ প্রকাশের ভাষা খুঁজে পাচ্ছিলেন না যেন ২৮ বছর বয়সী গোলকিপার।

“আমি আসলে কথা খুঁজে পাচ্ছি না। তারা ম্যাচটি টাইব্রেকারে টেনে নিয়েছে, যেখানে ভাগ্যই মূল ব্যাপার। তবে আজকের দিনটি ছিল আমার ও আমাদের বিজয়ের।মহামারীর এই সময়ে জৈব-সুরক্ষা বলয়ের মানসিক ধকল সহ্য করতে হচ্ছে ফুটবলারদের। তবে তাদের সেই যন্ত্রণা মুছে যাচ্ছে দলের জয়ে।

ফাইনালে প্রতিপক্ষ ব্রাজিল। শেষ বাধা পেরিয়ে ট্রফির ছোঁয়া পেতে মার্তিনেসরা তাকিয়ে মেসির দিকে।“৪০ দিন ধরে একরকম বন্দী আমরা, সুরক্ষা-বলয়ের বাইরে কারও দেখা পাচ্ছি না। প্রথম দিন থেকেই আমরা বলে আসছি যে ফাইনাল খেলতে চাই।

সেই ফাইনালে ব্রাজিলের সঙ্গে তাদের মাঠে খেলার চেয়ে ভালো কিছু আর কী হতে পারে! ব্রাজিল অবশ্যই দুর্দান্ত দল তবে আমাদের আছে বিশ্বসেরা ফুটবলার। আমরা সেখানে জিততেই যাচ্ছি।ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার এই মহারণ আগামী রোববার।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*