পাসপোর্ট থেকে ইসরাইল প্রসঙ্গ বাদ, যা বলছে সরকার

বাংলাদেশি পাসপোর্টে ‘ইসরাইল ছাড়া বিশ্বের সব দেশের ক্ষেত্রে বৈধ’ কথাটি আর লেখা থাকছে না। পাসপোর্ট অধিদফতরের কর্মকর্তারা বলছেন, সরকারের সিদ্ধান্তেই নতুন ই-পাসপোর্ট থেকে ইসরাইলের প্রসঙ্গটি বাদ দেওয়া হয়েছে।

এখন থেকে লেখা থাকবে–’এই পাসপোর্ট বিশ্বের সব দেশের ক্ষেত্রে বৈধ’। তবে বিষয়টি এখন পর্যন্ত সরকারের পক্ষ থেকে কোনো ঘোষণার মধ্য দিয়ে জানানো হয়নি।

এদিকে ইসরাইলের গণমাধ্যম জেরুজালেম পোস্টের এক প্রতিবেদনে শনিবার বলা হয়েছে, ইসরাইল ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিচ্ছে বাংলাদেশ। মূলত পাসপোর্ট থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার সূত্র ধরেই এ সংবাদ করেছে গণমাধ্যমটি।

এ খবরে এক ধরণের ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। ইসরাইল ইস্যুতে কয়েক যুগ ধরে অনুসৃত পররাষ্ট্রনীতি থেকে বাংলাদেশ সরে এসেছে কিনা সেই প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। তবে বিষয়টি পরিস্কার হয়েছে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেনের কথায়। তিনি রোববার গণমাধ্যমকে বলেন, বাংলাদেশ তার ইসরাইল নীতি পরিবর্তন করেনি।

তিনি আরও বলেন, নতুন পাসপোর্টে ’ইসরাইল ব্যতীত’ (except Israel) না লেখার অর্থ এই নয় যে, বাংলাদেশ তার অবস্থান পরিবর্তন করেছে। বাংলাদেশ এখনও ইসরাইলকে স্বীকৃতি দেয় নি।

তবে পাসপোর্টের কেন পরিবর্তন। এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, পাসপোর্টের ‘আন্তর্জাতিক মান’ রাখতে গিয়ে এই পরিবর্তন আনা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন বলেন, বিশ্বের কোনো দেশ এ শব্দটি ব্যবহার করেনি। এমনকি আরব অঞ্চলের দেশগুলোর পাসপোর্টেও এটি লেখা নেই। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ই- পাসপোর্টে পরিবর্তন এলেও এমআরপিতে তা আগের মতোই রয়েছে।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*