পান্তের পুরো শরীরেই ইনজুরি

সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন ঋষভ পান্ত। গাড়ি চালানোর সময় নিজ শহর উত্তরখন্ডের রুর্কি এলাকাতে মারাত্মক এই দুর্ঘটনার কবলে পড়েন তিনি। আহত হওয়ার পর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় ভারতের এই উইকেটরক্ষককে। বাজে দুর্ঘটনায় পুরো শরীরজুড়েই ইনজুরি আক্রান্ত হয়েছেন তিনি।


শুক্রবার (৩০ নভেম্বর) সকালে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিজের গাড়িতে করে উত্তরখন্ড থেকে নয়া দিল্লিতে ফিরছিলেন পান্ত। একাই ছিলেন তিনি। কিন্তু প্রচণ্ড ঘুম চলে আসায় টাল সামলাতে না পেরে ডিভাইডারের ওপর গাড়ি তুলে দেন তিনি।

যার ফলে ঘটে এই দুর্ঘটনা। পান্তের গাড়ি মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। আর দুর্ঘটনার পর পান্তকে স্থানীয় শাকশাম হসপিটাল মাল্টিস্পেশালিটি অ্যান্ড ট্রমা সেন্টারে নেয়া হয়। পরে সেখান থেকে দেহরাদুনের ম্যাক্স হসপিটালে নেয়া হয় ২৫ বছর বয়সী এই ক্রিকেটারকে।

পান্তের ইনজুরির ব্যাপারে ইতোমধ্যেই একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই)। বিসিসিআই জানায়, কপালে দুই শেলাই পড়েছে তার। ডান হাটুতে লিগামেন্টও ছিড়ে গেছে এবং ডান হাতের কব্জি, গোড়ালি, পায়ের আঙুলেও ইনজুরি আছে তার। এ ছাড়া পান্তের পিঠেও রয়েছে আঘাতের চিহ্ন।

যদিও তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে বিসিসিআই। কয়েকদিন আগেই বাংলাদেশে টেস্ট সিরিজ খেলে গেছেন পান্ত। মিরপুর টেস্টের প্রথম ইনিংসে তার করা ৯৩ রানের সুবাদে লড়াকু সংগ্রহ পায় ভারত।

এই সিরিজের পর অবশ্য বিশ্রাম পান তিনি। ঘরের মাঠে ৩ জানুয়ারি থেকে শুরু হতে যাওয়া শ্রীলঙ্কা সিরিজে দলে নেই তিনি।

শ্রীলঙ্কা সিরিজ চলার সময় বেঙ্গালুরুর ন্যাশনাল ক্রিকেট একাডেমীতে যোগ দেয়ার কথা ছিল পান্তের। আগামী ফেব্রুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ খেলবে ভারত। এই সিরিজের আগে বেঙ্গালুরুতে স্ট্রেংথ এবং কন্ডিশনিং ক্যাম্প শেষ করার কথা ছিল তার।

Sharing is caring!