পাকিস্তানে চীনা স্বার্থ টার্গেট করছে কারা !

পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশে নির্মাণাধীন একটি জলবিদ্যুৎ প্রকল্পে কাজে যাওয়ার সময় সন্দেহজনক এক স’ন্ত্রা’সী হা’মলায় গত বুধবার নয়জন চীনা প্রকৌশলী এবং শ্রমিক নিহ’ত হয়েছেন। এ খবর জানার পরপরই পাকিস্তানের কাছে ক্ষোভ ও উদ্বেগ জানাতে বিন্দুমাত্র দেরি করেনি বেইজিং।

ঘটনাচক্রে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই এবং পাকিস্তানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশি আঞ্চলিক এক বৈঠকের সূত্রে ওইদিন তাজিকিস্তানের রাজধানী দুশানবেতে ছিলেন। চীনের গ্লোবাল টাইমস জানিয়েছে, চীনা নাগরিকদের মৃ’ত্যুর খবর জানার সঙ্গে সঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই পাকিস্তানি মন্ত্রীর সঙ্গে

বৈঠক করেন এবং স’ন্ত্রা’সের প্রমাণ পেলে অপরাধীদের ধরে চরম শাস্তি দিতে বলেন। পাকিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনী এবং সরকারের পক্ষ থেকে প্রথমে ঘটনাটিকে সন্ত্রাসী হামলা বলা হলেও পরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে দাবি করা হয়, বাসটি সম্ভবত দুর্ঘটনার শিকার হয়ে খাদে পড়ার পর তাতে বি’স্ফো’রণ ঘটে।

তবে চীনারা এই ব্যাখ্যায় সন্তুষ্ট নয় এবং চীন থেকে ঘটনা তদন্তে একটি দল পাকিস্তান যাচ্ছে বলে জানা গেছে। শুক্রবার বিবিসি বাংলার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই ঘটনায় চীনের ভেতর সন্দেহ ঢোকা অযৌক্তিক কিছু নয়। কারণ সাম্প্রতিক বছরগুলোতে পাকিস্তানে চীনা প্রতিষ্ঠান,

চীনা প্রকল্প এবং চীনা নাগরিকদের লক্ষ্য করে বেশ কয়েকটি হা’মলা হয়েছে। পাকিস্তানে হা’মলার টার্গেট ছিলেন চীনের রাষ্ট্রদূতও এসব হা’মলার মধ্যে অন্তত পাঁচটি হা’মলা ছিল বেশ বড় মাপের, যার মধ্যে দুটি হা’মলায় পাকিস্তানে নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত এবং চীনের একটি কনস্যুলেটকে লক্ষ্যবস্তু করা হয়।

চলতি বছর ২১ এপ্রিলে বালোচিস্তান প্রদেশের রাজধানী কোয়েটা সফরকালে চীনা রাষ্ট্রদূত নং রং এবং করাচিতে চীনা কনসাল জেনারেল যে হোটেলে উঠেছিলেন, সেখানে স’ন্ত্রা’সী হা’মলায় পাঁচজন মারা যায়। হা’মলার সময় হোটেলে না থাকায় প্রাণে বেঁচে যান চীনা কূটনীতিকরা।

তার আগে, ২০১৮ সালের নভেম্বরে করাচিতে চীনা কনস্যুলেটে বো’মা হা’মলায় মা’রা যায় চারজন। একই সালের আগস্ট মাসে এক আত্মঘা’তী হা’মলাকারী বালোচিস্তানের দালবাদিনে চীনা প্রকৌশলীদের বহনকারী একটি বাসকে টার্গেট করেছিল।

আর ২০১৯ সালের মে মাসে বালোচিস্তানেই চীনের তৈরি গোয়াদার সমুদ্র বন্দরের খুব কাছে পার্ল কন্টিনেন্টাল হোটেলে এক স’ন্ত্রা’সী হা’মলা হয়, যাতে পাঁচজন মা’রা যায়। এছাড়া, গত বছর করাচিতে পাকিস্তানে স্টক এক্সচেঞ্জ ভবনে হা’মলায় চার নিরাপত্তারক্ষী মা’রা যায়।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*