পরমাণু অস্ত্র বানানো প্রসঙ্গে মুখ খুললেন ইরান!

ইরান পরমাণু অস্ত্র বানানোর সিদ্ধান্ত নিলে কেউ তা ঠেকাতে পারত না বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি। তিনি বলেন, ইহুদিবাদী চক্র বারবার বলে আসছে ‘আমরা ইরানকে পরমাণু অস্ত্র তৈরি করতে দেব না।

তাদের জেনে রাখা উচিত ইরান যদি পরমাণু অস্ত্র তৈরির সিদ্ধান্ত নিত তাহলে ইহুদিবাদীরা তো দূরের কথা তাদের চেয়ে বড় শক্তিগুলোর পক্ষেও তা প্রতিহত করা সম্ভব হতো না। সোমবার ইরানের বিশেষজ্ঞ পরিষদের সদস্যদের উদ্দেশে দেয়া ভাষণে খামেনি এসব কথা বলেন।

এ সময় তিনি ঘোষণা দেন, তার দেশ পরমাণু কর্মসূচির বিষয়ে নিজের যৌক্তিক অবস্থান থেকে সরে আসবে না এবং প্রয়োজন হলে শতকরা ৬০ মাত্রায় ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করবে।

সর্বোচ্চ নেতা আরও বলেন, দেশের প্রয়োজনে পরমাণু সক্ষমতা অর্জনের ক্ষেত্রে আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ এবং এ কারণে আমাদের ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের মাত্রা ২০-এ সীমাবদ্ধ থাকবে না বরং যত মাত্রা প্রয়োজন হবে তত মাত্রায় ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করা হবে।

সোমবারের ভাষণে ইরানের অবস্থান তুলে ধরেন আয়াতুল্লাহ খামেনি বলেন, পারমাণবিক ও রাসায়নিক অস্ত্রসহ যেসব অস্ত্র দিয়ে সাধারণ মানুষকে গণহারে হ’ত্যা করা যায় সেসব অস্ত্র তৈরিতে ইসলামের বিধিনিষেধ রয়েছে এবং আমরা সে বিধিনিষেধ অক্ষরে অক্ষরে পালন করব।

ইরান এ পর্যন্ত সর্বোচ্চ ২০ মাত্রায় ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করেছে। ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতায় এই মাত্রা সাড়ে তিন ভাগ নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছিল। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র এই সমঝোতা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর সম্প্রতি ইরান আবার ২০ মাত্রায় সমৃদ্ধকরণ শুরু করেছে।

পরমাণু অস্ত্র তৈরি করতে শতকরা ৯০ ভাগ বা তার বেশি মাত্রায় ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করার প্রয়োজন হয়। তেহরান বলেছে, ইসলামের সুমহান দিকনির্দেশনা অনুসরণ করে দেশটি পরমাণু অস্ত্র তৈরি করবে না।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *