’নেইমারকে মারব’ জানিয়ে দিলেন আর্জেন্টাইন বন্ধু

ফরাসি ক্লাব প্যারিস সেন্ট জার্মেইতে (পিএসজি) দুজন একইসঙ্গে খেলেন। তাই নেইমার আর লিওনার্দো পারেদেসের মধ্যে সম্পর্কটাও দারুণ। কিন্তু এই সম্পর্ক এবার রূপ নিতে যাচ্ছে শত্রুতায়। কোপা আমেরিকার ফাইনালে যে পারেদেসের আর্জেন্টিনার সামনে নেইমারের ব্রাজিল।

দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দলের লড়াই, সেটাও আবার শিরোপা জেতার জন্য। বন্ধুত্ব মনে রাখার উপায় আছে? আর্জেন্টাইন ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার পারেদেস তো আগেভাগেই জানিয়ে রাখলেন, বন্ধু হলেও কোনো ছাড় নেই নেইমারের জন্য। বরং ফাইনালে তাকে আটকাতে প্রয়োজনে আঘাতও করবেন।

এই ফাইনাল নিয়ে নেইমারের সঙ্গে কথা হয়েছে পিএসজি মিডফিল্ডারের। নেইমারও বলেছেন, খেলার সময় বন্ধুত্বের কথা আর মনে রাখবেন না। পারেদেসের তো পরিকল্পনা পিএসজি সতীর্থকে মার দেয়ারই। টিসি স্পোর্টসকে পারেদেস বলেন, ‘(নেইমার) জায়গা খুঁজে নিতে চায়।

সে চায় গায়ে গা লাগিয়ে চলে যেতে। কিন্তু তারা (প্রতিপক্ষ) তাকে প্রচুর আঘাত করে।’ আসলে নেইমার আর মেসির মানের খেলোয়াড়কে আটকে রাখাটাও কঠিন, মনে করেন পারেদেস। তিনি বলেন, ‘তাকে (নেইমার) মার্কিং করা খুবই ঝামেলার। কিছু করা আসলে অসম্ভব।

কারণ আপনি জানবেনই না সে কোথায় যাচ্ছে। তার এবং মেসির বেলায় এটাই ঘটে।’ আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার যোগ করেন, ‘এমনকি যদি তাদের সম্পর্কে আপনি অনেক কিছু জেনেও থাকেন, তারা আলাদা কিছু করে বসবে। তাদের মাথা খুব দ্রুত কাজ করে, শরীরও।’

তাহলে নেইমারকে আটকানোর উপায় কী? পারেদেস মনে করেন, মারতে হবে। তিনি বলেন, ‘নেইমারকে খুব কাছে থেকে মার্ক করতে হবে। কিছুটা আঘাতও করার দরকার পড়বে। সে-ও জানে আমি তাকে পাগল বানিয়ে ছাড়ব। সে আমাকে সেটা বলেছেও। সে এটাও বলেছে, যদি সম্ভব হয় আমরা পুরো ম্যাচেই লড়াই করব।’

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*