নিখোঁজ নারীর সন্ধান মিললো অজগরের পেটে

৫৪ বছর বয়সী নারী জাহারাহ। গত শুক্রবার (২১ অক্টোবর) এই নারী তার বাড়ির কাছে একটি বাগানে রাবার সংগ্রহ করতে গিয়ে নিখোঁজ হন।পরে পরিবারের সদস্যরা দেশটির জরুরি বিভাগকে জাহারার বিষয়টি জানালে গ্রামবাসীকে নিয়ে তারা অনুসন্ধান শুরু করে।

পরবর্তীতে গ্রামবাসী তল্লাশি দলটি ২২ ফুট লম্বা একটি অজগর খুঁজে পায়। যার পেট ফোলা ছিল। পরে গ্রামবাসী সেই অজগরের পেট কেটে জাহারাহর মরদেহ বের করে। তকাল মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) ফক্স নিউজের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

স্থানীয় গ্রামপ্রধান আন্তো বিষয়টি নিশ্চিত করেন।তিনি জানান, ‘বাসিন্দারা সাপটিকে হত্যা করে এবং এর পেট চিরে ফেলে। সবাই অবাক হয়ে গিয়েছিল। দেখা গেল আমরা যে নারীকে খুঁজছিলাম সে সাপের পেটে।’তবে কেউই সাপটিকে নিখোঁজ নারীকে জীবিত খেতে দেখেনি।

উল্লেখ্য, এর আগে গত ২০১৭ সালের মার্চেও এমন এক ঘটনায় ইন্দোনেশীয় এক কৃষককে অজগরের পেট কেটে বের করা হয়েছিল। ফসল কাটার সময় সেই কৃষক নিখোঁজ হয়। যেখান থেকে তিনি নিখোঁজ হন, সেখানেই পেট ফোলা এক সাপের পেট থেকে তাকে বের করা হয়।ইন্দোনেশিয়ার আরেক ব্যক্তি ৩৭ বছর বয়সী নববান। সাপ তার খুবই পছন্দের খাবার।

২৫ ফুটের বেশি লম্বা এক অজগরকে সে ধরে বস্তায় ঢুকান। কিন্তু বিশাল সাপটি পাল্টা লড়াই করে তার বাম হাত কামড়ে দেয় এবং শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলে।পরে নববানকে চিকিৎসার জন্য পাশের শহরের এক হাসপাতালে নেয়া হয়। পুলিশ জানিয়েছিল, নিরাপত্তা প্রহরী ও স্থানীয় বাসিন্দার হস্তক্ষেপে সে যাত্রায় প্রাণে বেঁচে যান নববান।

পরবর্তীতে ক্ষুধার্ত স্থানীয়রা পরে সাপটিকে হত্যা করে কেটে খেয়ে ফেলে। এটিকে ভেজে খাওয়ার আগে গ্রামে এর দেহ প্রদর্শন করা হয়।বিশাল আকৃতির এই অজগরগুলো (জায়ান্ট পাইথন) সাধারণত ২০ ফুটের বেশি লম্বা হয়, ইন্দোনেশিয়া ও ফিলিপাইনে এদের দেখতে পাওয়া যায়।

Sharing is caring!