দেশে হু হু করে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা

করোনাভাইরাসের আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৩২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে করোনায় মৃত্যু সংখ্যা দাঁড়ালো ১৪ হাজার ৭৭৮ জনে। সর্বাত্মক লকডাউনের দ্বিতীয় দিন শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ৮ হাজার ৪৮৩ জনের শরীরে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত হয়েছে ৯ লাখ ৩০ হাজার ৪২ জন।এর আগে সর্বাত্মক লকডাউনের প্রথম দিন বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে একদিনে প্রাণহানির সর্বোচ্চ রেকর্ড হয়েছে। সেদিন ১৪৩ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।

বরিশালে করোনা শনাক্তের হার ৩৫ শতাংশ বরিশালে গত ২৪ ঘণ্টায় ৭১৪ জনের নমুনা পরীক্ষা ২৪৮ জনের করোনা পজিটিভ এসেছে। শনাক্তের হার ৩৪ দশমিক ৭৩ শতাংশ। এ নিয়ে বিভাগে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১৮ হাজার ১৩৪ জন।

এছাড়া এই সময়ে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে ৬ জন এবং বরিশাল জেলায় ১ জন করেনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। যা নিয়ে গোটা বরিশাল বিভাগে করোনায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৩১২ জনে দাঁড়িয়েছে বলে জানিয়েছেন বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. বাসুদেব কুমার দাস জানান, মোট আক্রান্ত ১৮ হাজার ১৩৪ জনের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৫ হাজার ৯৫ জন। আক্রান্ত সংখ্যায় বরিশাল জেলায় নতুন শনাক্ত ১১১ জন নিয়ে মোট ৭ হাজার ৯৮৯ জন, পটুয়াখালী জেলায় নতুন ১৮ জন নিয়ে মোট ২৫০৩ জন, ভোলা জেলায় নতুন ৮ জনসহ মোট ২০৬৮ জন, পিরোজপুর জেলায় নতুন ৫৬ জন নিয়ে মোট ২৩৩১ জন, বরগুনা জেলায় নতুন ২৩ জন নিয়ে মোট আক্রান্ত ১৪৬৫ জন এবং ঝালকাঠি জেলায় নতুন ৩২ জন শনাক্ত হওয়ায় মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৭৭৮ জন।

এদিকে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালকের দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় শুধুমাত্র বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে ৬ জনের এবং করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা নিয়ে শুধুমাত্র শেবাচিম হাসপাতালেই করোনায় আক্রান্ত হয়ে ২০৮ জন এবং আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে ৫৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করা ৫৩৯ জনের মধ্যে ৪৩ জনের কোভিড টেস্টের রিপোর্ট এখনো হাতে পাওয়া যায়নি।

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পরিচালকের তথ্য সংরক্ষক জাকারিয়া খান স্বপন জানিয়েছেন, গত ২৪ ঘণ্টায় (শুক্রবার) সকাল পর্যন্ত শেবাচিমের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে ৩১ জন ও করোনা ওয়ার্ডে ১১ জন ভর্তি হয়েছেন। যা নিয়ে করোনা ও আইসোলেশন ওয়ার্ডে এখন ১৬৫ জন রোগী চিকিৎসাধীন আছেন। যাদের মধ্যে ৩৩ জনের করোনা পজিটিভ এবং ১৩২ জন আইসোলেশনে রয়েছে।

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের আরটি পিসিআর ল্যাবে মোট ১৯৩ জন করোনা পরীক্ষা করা হয়। যার মধ্যে ৫৩.৩৬ শতাংশ পজিটিভ শনাক্তের হার।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*