দেশের খেলা বাদ দিয়ে আইপিএলে যাওয়াদের ধুয়ে দিলেন ওয়ার্ন

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেটের প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়ন অধিনায়ক অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি লেগস্পিনার শেন ওয়ার্ন। ২০০৮ সালের সেই আসরে রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে শিরোপা জিতেছিলেন ওয়ার্ন। এরপর খেলেছেন আইপিএলের আরও তিনটি আসরে।খেলোয়াড়ি অধ্যায় শেষে কোচ-মেন্টর হিসেবে আইপিএলে দেখা গেছে ওয়ার্নকে।

সবমিলিয়ে বলা চলে, আইপিএলের বিষয়ে কোনো নেতিবাচক চিন্তা নেই তার। তবে জাতীয় দলের দায়িত্ব বাদ দিয়ে যারা আইপিএলকে বেছে নেয়, তাদের বিষয়ে কোনো ছাড় দিতে রাজি নন এ কিংবদন্তি ক্রিকেটার। ওয়ার্নের মতে, যারা জাতীয় দলের খেলার সময়, দেশের দায়িত্ব বাদ দিয়ে আইপিএল খেলে, তাদেরকে কখনও জাতীয় দলে নেয়া উচিত নয়।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি দেখা যায় এই অবস্থা। এছাড়া অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়রাও মাঝেমাঝে আইপিএলকেই বেছে নেন আগে। অধিক টাকা আয়ের জন্য আইপিএল খেলতে যাওয়া ক্রিকেটারদের ওপর কোনো ক্ষোভ নেই ওয়ার্নের। তবে তারা যদি টাকাকেই অধিক প্রাধান্য দিয়ে থাকে, তাহলে জাতীয় দলে না নেয়ার পক্ষেই ওয়ার্ন।

রোড টু অ্যাশেজ পডকাস্টে এ বিষয়ে কথা বলেছেন তিনি। ওয়ার্ন বলেছেন, ‘খেলোয়াড়রা আইপিএল থেকে যে টাকা পাচ্ছে তাতে আমি নারাজ নই। এটা দুর্দান্ত। তারা যদি টাকা নিতে চায়, তাদেরকে সেটাই করতে দেয়া হয়। কিন্তু আপনি যদি দেশের হয়ে ক্রিকেট খেলতে চান এবং আইপিএলকে বেছে নেন, তাহলে হয়তো তাদেরকে দলে না নেয়াই ভালো।

তিনি আরও যোগ করেন, ‘কারণ তখন এমন হবে যে, খেলোয়াড়রা টেস্ট ম্যাচ মিস করবে, সে সময় বিশ্রামে কাটাবে, নিজেদের দেশকে প্রতিনিধিত্ব করবে না এবং পরে টাকার জন্য (আইপিএল) খেলতে নামবে। ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা এ বোলারের বিশ্বাস, টেস্ট ক্রিকেটই হলো সবচেয়ে সেরা ফরম্যাট।

তাই কেউ যদি নিজেকে ক্রিকেটার হিসেবে মূল্যায়িত করতে চায়, তাহলে সেটা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট, বিশেষ করে টেস্ট ক্রিকেট দিয়েই করতে হবে বলে মনে করেন ওয়ার্ন। তার ভাষ্য, ‘বিষয়টা সহজ নয়। দেখুন, কেউ যদি বলে এই নাও ৩০ লাখ টাকা অথবা এমন কোথাও যাও যেখানে ছয় সপ্তাহের জন্য পরিবারের থেকে দূরে থাকতে হবে।

তখন টাকা বেছে নেয়ার সিদ্ধান্তটা সহজ। কিন্তু আপনি ক্রিকেটার হিসেবে বড় হতে চাইলে সেরাদের বিপক্ষে নিজের পরীক্ষা নিতে হবে। আর তা করার সবচেয়ে বড় মঞ্চ হলো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট, বিশেষ করে টেস্ট ক্রিকেট। আপনি যদি টাকাকে বেছে নেন, তাতে সমস্যা নেই। কিন্তু এতে হয়তো আপনাকে কয়েকটি টেস্ট ম্যাচ মিস করতে হবে। কারণ আপনার জায়গা নেয়ার জন্য সবসময়ই কেউ না কেউ থাকবে।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*