দুপুরে খেলা, বাড়তি সুবিধা পাবে টাইগাররা

এবারের টি-২০ বিশ্বকাপটা টাইগারদের জন্য একটু বেশিই ঘটনাবহুল। মূলপর্বে খেলার জন্য বড় পরীক্ষা দিতে হয়েছে সাকিব-মাহমুদউল্লাহদের।অন্যদিকে, গ্রুপ বি তে পড়ার কথা থাকলেও আইসিসির পরিবর্তিত নিয়মের কারণে এখন গ্রুপ এ তে খেলতে হবে বাংলাদেশকে, যেখানে সব ম্যাচই দিনের আলোয়। এতে করে লাভ হবে? নাকি লোকসান! উত্তরে বলা হয়, লাভই হবে।

সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশকে প্রতিটি ম্যাচই খেলতে হবে দিনের আলোতে। এটা কীভাবে ইতিবাচক হয়! যেখানে মাসকাটের গরমে পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে ম্যাচে হাঁসফাঁস করতে হয়েছে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের! ইতিবাচক দিক আছে। সেটি আজ জানিয়েছেন দলের সঙ্গে যাওয়া নির্বাচক কমিটির অন্যতম সদস্য, সাবেক অধিনায়ক হাবিবুল বাশার।

‘গ্রুপের সব দলই ভালো। জিততে হলে প্রতিটি ম্যাচেই আমাদের ভালো খেলতে হবে। এ গ্রুপে পড়ায় যে সুবিধাটা হয়েছে, সেটি হচ্ছে সব ম্যাচই আমাদের দুপুরে পড়েছে। রাতে বল একটু কম স্পিন করে। দুপুরে ম্যাচ হওয়াতে এটা আমাদের জন্য ভালো হয়েছে’ বলেছেন হাবিবুল বাশার।

বাংলাদেশ সুপার টুয়েলভে গ্রুপ-‘১’ এ থাকছে। যেখানে গ্রুপে মাহমুদউল্লাহদের সঙ্গী শ্রীলঙ্কা, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা আর ওয়েস্ট ইন্ডিজ।স্কটল্যান্ড আর ওমানের বিপক্ষে প্রথম পর্বের দুটি ম্যাচই ছিল রাতে, ফ্লাড লাইটের আলোতে। এ দুটি ম্যাচেই বাংলাদেশের স্পিনাররা ভুগেছেন গ্রিপ সমস্যায়।

মাসকাটেই কেবল নয়, সংযুক্ত আরব আমিরাতেও রাতে শিশির পড়ে।যেহেতু বাংলাদেশের বোলিং আক্রমণ স্পিনের ওপর নির্ভরশীল, তাই শিশিরটা সেখানে বড় সমস্যাই। সে কারণে দিনের আলোতে পুরো ম্যাচই বাংলাদেশের জন্য ইতিবাচক।

গ্রুপে যেহেতু অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ আছে, আর এ দেশগুলো ঐতিহাসিকভাবেই স্পিন বোলিং আর শুষ্ক উইকেটে নিজেদের দুর্বলতা প্রকাশ করে ফেলে। তাই দিনে খেলা হলে বাংলাদেশ বাড়তি সুবিধাই পাবে বলে মনে করছেন হাবিবুল বাশার।

তা বাংলাদেশের গ্রুপটা কেমন হলো? এ নিয়ে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ কাল পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে ম্যাচের পর অবশ্য জানিয়ে দিয়েছেন প্রতিপক্ষ নিয়ে তাদের কোনো মাথাব্যথা নেই।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া কিংবা দক্ষিণ আফ্রিকার মতো দলে পাওয়ার হিটার প্রচুর থাকবে—এমন হুমকি থাকার পরও মাহমুদউল্লাহ ব্যাপারটি নিয়ে নির্লিপ্ত, ‘পরেরটা পরে দেখা যাবে।’ মাহমুদউল্লাহ অবশ্য ভালো খেলার কথাও বলেছেন, ‘যেখানেই খেলি ভালো খেলতে হবে, এটাই মূল কথা।’

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*