টি-২০তে সর্বকালের সেরা পাঁচে সাকিব

সাকিব আল হাসান; বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপনের নাম। ২২ গজে ব্যাটে-বলের অনবদ্য নৈপুণ্যে একের পর অর্জন যুক্ত হয়েছে বর্নাঢ্য ক্রিকেট ক্যারিয়ারে। প্রতিনিয়ত দূদার্ন্ত সব রেকর্ড গড়ে নাম লিখিয়েছেন কিংবদন্তিদের পাশে। সেই ধারাবাহিকতায় সোমবার আবারও রেকর্ড বইয়ের পাতায় নিজের নাম জুড়ে দিয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

স্বীকৃত টি-টোয়েন্টিতে সর্বকালের সর্বাধিক উইকেট শিকারের তালিকায় আজ সেরা পাঁচে উঠে এসেছেন সাকিব আল হাসান। দেশ-বিদেশ মিলিয়ে এই ফরম্যাটে এখন পর্যন্ত খেলা ৩২৪ ম্যাচে ৩৬৯* উইকেট শিকার করেছেন টাইগার অলরাউন্ডার। আজ সাকিব পিছনে ফেলেছেন পাকিস্তানের বাঁহাতি পেসার সোহেল তানভিরকে (৩৩৫ ম্যাচে ৩৬৮ উইকেট)।

সম্প্রতি ব্যাটে হাতে খারাপ সময় পার করলেও বল হাতে দূর্দান্ত ছন্দে আছেন সাকিব আল হাসান। মিরপুরে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে আজও দূর্দান্ত বল করেছেন মোহামেডান অধিনায়ক। শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের বিরুদ্ধে আজ ৪ ওভার হাত ঘুরিয়ে মাত্র ১২ রান খরচায় দুই উইকেট তুলে নেন সাকিব।

ম্যাচের সপ্তম বোলিংয়ে এসে এক ওভারেই মোহাম্মদ আশরাফুলকে ইমনের হাতে ক্যাচে পরিণত করে এবং ফারদিন হাসানকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে সাজঘরে ফেরান মোহামেডান অধিনায়ক সাকিব। স্বীকৃত টি-টোয়েন্টি সর্বাধিক উইকেট শিকারের তালিকায় সবার উপরে রয়েছেন ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার ডিজে ব্রাভো।

এখন পর্যন্ত ৪৭৮টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ৫১৮ উইকেট শিকার করেছেন তিনি। দুইয়ে তারই স্বদেশি সুনীল নারাইন। ডানহাতি এই অফস্পিনার ৩৫৫ ম্যাচে নিয়েছেন ৩৯৩ উইকেট। এ তালিকায় তিনে অবস্থান করছেন শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি পেসার লাসিথ মালিঙ্গা। সাবেক বিশ্বকাপ জয়ী লঙ্কান অধিনায়ক ২৯৫টি টি-টোয়েন্টিতে ৩৯০টি উইকেট শিকার করেছেন।

আর চারে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকার লেগ-স্পিনার ইমরান তাহির নিয়েছেন ৩০৮ ম্যাচে ৩৮৬ উইকেট। তবে আজও ব্যাট হাতে ব্যর্থ হয়েছেন সাকিব আল হাসান। ৯ বল মোকাবিলায় মাত্র ২ রান করে এনামুল হকের বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফিরেছেন তিনি।

টি-টোয়েন্টিতে সর্বাধিক উইকেট:

ডিজে ব্রাভো – ৫১৮
সুনীল নারাইন – ৩৯৩
লাসিথ মালিঙ্গা – ৩৯০
ইমরান তাহির – ৩৮৬
সাকিব আল হাসান ৩৬৯*
সোহেল তানভীর – ৩৬৮

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*