জয়ের জন্য বাংলাদেশের প্রয়োজন ২৩০

বাংলাদেশের বিপক্ষে শুরুটা দারুণ হয়েছিল ভারতের। আক্রমণাত্মক ব্যাট করে দুই ওপেনার শেফালি ভার্মা ও স্মৃতি মান্দানা। কিন্তু রিতু মনির এক ওভারেই ঘুরে যায় ম্যাচের মোড়। দুই ওপেনারকেই সাজঘরে ফেরত পাঠান তিনি। তার পর ভারতের মেয়েদের সঙ্গে সমান তালে পাল্লা দিয়ে লড়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা।

নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২২৯ রান করেছে ভারতের মেয়েরা। এর আগে টস জিতে শুরুতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় তারা। ব্যাট করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে ৭৪ রান যোগ করেন ভারতের দুই ওপেনার। মারমুখী শেফালি ভার্মা জাহানারা আলমের এক ওভারেই হাঁকান তিনটি চার।

ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ যখন ধীরে ধীরে ফসকে যাচ্ছে, তখনই বাংলাদেশকে খেলায় ফেরান নাহিদা আক্তার। তার শট বল পুল করতে গিয়ে ব্যাকওয়ার্ড স্কয়ার লেগে ক্যাচ তুলে দেন স্মৃতি মান্দানা। ৩ চারে ৫১ বলে ৩০ রান করেন তিনি। পরের ওভারের তৃতীয় বলেই ভয়ঙ্কর হতে থাকা শেফালিকে ফেরান রিতু মনি।

এগিয়ে এসে তার বল খেলতে চেয়েছিলেন তিনি। ৪২ বলে ৪২ রান করেন শেফালি। এর পর মিতালি রাজকে একেবারেই শূন্যরানেই সাজঘরের পথ দেখান রিতু। ইয়াশকিতা ভাটিয়ার সঙ্গে এর পর ইনিংস মেরামতের কাজ শুরু করেছিলেন হারমানপ্রিত কার। কিন্তু তাকে দুর্দান্ত এক রান আউট করেন ফারজানা হক।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*