জুয়াড়ির প্রস্তাব লুকানোর কারণ জানালেন উমর আকমল!

অনেক নাটকীয়তা আর আইনি লড়াই শেষে নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্ত হতে যাচ্ছেন পাকিস্তানের উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান উমর আকমল। জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করায় তাকে তিন বছরের নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছিল। আপিল করায় সেই নিষেধাজ্ঞা ১৮ মাসে নেমে আসে। এরপর আরেক দফা আপিলে তা নেমে আসে ১ বছরে। যার বেশির ভাগ সময় এর মধ্যে কেটে গেছে।

খুব দ্রুতই ক্রিকেটে ফিরতে পারবেন আকমল। কিন্তু কেন তিনি জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করেছিলেন? এক সাক্ষাৎকারে উমর বলেন, ‘পিসিবির অ্যান্টি করাপশন ইউনিটকে বিষয়টা জানাইনি কারণ আমি ভাবছিলাম বিষয়টা সত্যিই গোপন থাকবে কি-না, ফাঁস হয়ে যায় কি-না।

বিষয়টি জানানোর পূর্ণ ভাবনা আমার মাথায় ছিল। পিএসএল ফিক্সিংয়ের যে প্রস্তাব আমাকে দেওয়া হয়েছিল তা জানানোর জন্য আমি বোর্ড প্রধানের কাছেও গিয়েছিলাম। দুর্ভাগ্যবশত, তার সাথে দেখা করতে পারিনি কারণ তিনি ব্যস্ত ছিলেন। এরপর এ রকমই হয়ে যায় ব্যাপারটা।

আমি কখনই এসবে (ফিক্সিং) জড়িত নই, কারণ পাকিস্তানের হয়ে খেলা আমার জন্য সবচেয়ে সম্মানের কাজ’। পাকিস্তানের হয়ে ১৬টি টেস্ট, ১২১টি ওয়ানডে ও ৮৪টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে উমর আকমলের সংগ্রহ যথাক্রমে ১০০৩, ৩১৯৪ ও ১৬৯০ রান। পাকিস্তানের ক্রিকেটে ফিক্সিং নিয়মিত ব্যাপার।

সিংহভাগ ক্রিকেটার ফিক্সিংয়ে যুক্ত। তারপরেও আকমলের বক্তব্য শুনে তাকে নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্তি দিয়েছে আদালত। ক্রিকেটে ফিরতে পেরে খুশি আকমল বলেন, ‘ক্রিকেটই আমার রুটিরুজি। এক বছর দূরে থেকে আমি কত ভুগেছি তা আমিই জানি। আবারো পাকিস্তানের জার্সিতে ফিরতে চাই এবং আমি আশাবাদী যে, ভালোভাবে ফিরতে পারব’।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*