জাতিসংঘে ফিলিস্তিনের পক্ষ নিয়ে যা বলল বাংলাদেশ!

জাতিসংঘে ফি’লিস্তি’ন স’ঙ্ক’টের স্থায়ী সমাধানের আহ্বান জা’নিয়েছে বাংলাদেশ। ইস’রাই’ল-ফি’লিস্তি’ন চলমান প’রিস্থিতি সমাধানে জরুরি ও নি’ষ্প’ত্তিমূলক সিদ্ধান্ত গ্রহণে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (মে ২০) মধ্যপ্রাচ্য প’রিস্থিতি ও ফি’লিস্তি’নি প্রশ্নে জা’তিসংঘ সাধারণ পরিষদের সভাপতি আহুত এক যৌথ আলোচনায় বক্তব্য প্রদানকালে এ আহ্বান জানান তিনি। শিশু ও নারীসহ নিরপরাধ ফিলিস্তিনি অ’সামরিক নাগরিকদের ওপর দখলদার ইস’রাই’লের ব’র্ব’রো’চিত স’হিং’সতার তীব্র নিন্দা জা’নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসকে পত্র দিয়েছেন ম’র্মে সা’ধারণ পরিষদকে অব’হিত করেন রাষ্ট্রদূত ফাতিমা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লিখিত পত্র উদ্বৃত করে তিনি পূর্ব জে’রুজা’লেমকে রাজধানী করে ১৯৬৭ সালের সীমানা অনুযায়ী স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে ফিলিস্তিনি জনগণের আত্মনিয়ন্ত্রণ অধিকার রক্ষার প্রতি বাংলাদেশের অবিসংবাদিত প্রতিশ্রুতির কথা পুনরুল্লেখ করেন।

মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠায় এবং ফিলিস্তিনি সমস্যার ব্যাপকভিত্তিক, ন্যা’য়স’ঙ্গত ও টে’কসই সমাধানের লক্ষ্যে কিছু অ’গ্রাধিকার বিষয় তুলে ধরেন তিনি। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এই সংকটের মূল কারণ খুঁজে বের করে তা সমাধানে আন্তরিক প্র’চেষ্টা গ্রহণ করা; জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ ও সাধারণ পরিষদকে তাদের চার্টার অনুযায়ী পরিপূর্ণভাবে দায়িত্ব পালন করা;

‘কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ না করার সং’স্কৃতি’ থেকে বে’রিয়ে আসা এবং সবধরনের আন্তর্জাতিক মা’নবাধি’কার আইন ও জা’তিসংঘের রে’জুলেশন ২৩৩৪(২০১৬)সহ এতদসংশ্লিষ্ট সব রেজু’লেশন ই’সরাই’লকে প’রিপালন করাতে বাধ্য করা। এছাড়া শান্তি প্রতিষ্ঠার রো’ডম্যাপ ও মধ্যপ্রাচ্য শান্তি প্রক্রিয়ার দ্রুত বাস্তবায়ন নিশ্চিতে সব পক্ষের সাথে জাতিসংঘকে আরও নি’বি’ড়ভাবে সংশ্লিষ্ট হওয়ার আহ্বান জানান রাষ্ট্রদূত ফাতিমা।

শতাধিক জাতিসংঘ সদস্যরাষ্ট্র দিনব্যাপী চলমান এ আলোচনায় অংশগ্রহণ করে। সদস্য রাষ্ট্রের প্রতিনিধি ছাড়াও এতে বক্তব্য রাখেন জাতিসংঘ মহাসচিব ও জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের সভাপতি। বক্তারা ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে অনতিবিলম্বে যুদ্ধবিরতি এবং ফিলিস্তিনি সংকটের আশু সমাধানের আহ্বান জানান।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*