চীনে বিধ্বস্ত বিমান থেকে দেহাবশেষ উদ্ধার

চীনের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে ১৩২ জন আরোহী নিয়ে বিধ্বস্ত হওয়া বিমানটি থেকে মানুষের দেহাবশেষ উদ্ধার করেছে উদ্ধারকর্মীরা। দেশটির রাষ্ট্রীয় সম্প্রচার মাধ্যম বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ) একথা জানায়। এর আগে সোমবার ১৩২ জন আরোহী নিয়ে চায়না ইস্টার্নের একটি বোয়িং ৭৩৭ বিমান চীনের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ গুয়ানশিতে বিধ্বস্ত হয়৷ ধারণা করা হয়, ওই ঘটনায় বিমানটির সব যাত্রী মারা গেছেন।

এদিকে ভারি বৃষ্টিপাতের কারণে দুর্ঘটনা কবলিত স্থানে উদ্ধার তৎপরতা চালাতে বেগ পেতে হচ্ছে বলে জানা গেছে। সংবাদ মাধ্যম জানায়, দুর্ঘটনাকবলিত এলাকা থেকে বিমানের ব্ল্যাক বক্স উদ্ধার করা হয়েছে। কর্মকর্তারা জানান, বিমানটি বিধ্বস্ত হওয়ার কারণ জানতে ব্ল্যাক বক্সটি বেইজিংয়ে পাঠানো হবে।

এদিকে নিখোঁজদের সন্ধানে বুধবার ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়েছেন স্বজনরা। এ সময় প্রশাসনের লোকদের উপস্থিতিতে তাদের নিয়ে যেতে দেখা যায়। অধিকাংশ পরিবারের লোকজন সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা না বলেই মাথা নিচু করে হেটে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে দেখা গেছে।

চীনের বেসরকারি বিমান চলাচল সংস্থা জানায়, এমইউ-৫৭৩৫ ফ্লাইটটি সোমবার স্থানীয় সময় দুপুর ১টায় কুনমিং থেকে গুয়ানঝোউর উদ্দেশে ছেড়ে যায়। এর পর ফ্লাইট ট্র্যাকার ফ্লাইটরাডার-২৪ বিমানটির অবস্থান ‘অজ্ঞাত’ দেখায়। পরে গুয়ানসি অঞ্চলের উঝোউ শহরের প্রত্যন্ত অঞ্চলে বোয়িং-৭৩৭ বিমানটি বিধ্বস্ত হয়।

ফ্লাইট ট্রাকার ফ্লাইটরাডার-২৪ এর তথ্যানুযায়ী, বিমানটি মাত্র সোয়া দুই মিনিটে ২৯ হাজার একশ ফুট থেকে ৯ হাজার ৭৫ ফুট নিচে নেমে আসে। এর পরের ২০ সেকেন্ডে আরও নিচে নামে বিমানটি। তিন হাজার ২২৫ ফুটের পর বিমানটি থেকে তথ্য আসা বন্ধ হয়ে যায়।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*