চিলিকে এক হালি দিলো ব্রাজিল

লাতিন আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে শুক্রবার ভোরে মারাকানা স্টেডিয়ামে চিলিকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে ব্রাজিল। দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে আজ শুক্রবার (২৪ মার্চ) সকালে চিলির মুখোমুখি ব্রাজিল। ম্যাচের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত দুর্দান্ত ছিল নেইমার-ভিনিসিয়াসরা। বল দখলে রেখে আক্রমণটা দুর্দান্ত সাজায় সেলেসাওরা। আর ব্রাজিলের কাছে বিধ্বস্ত হয়ে কাতার বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব থেকেই ছিটকে যাওয়ার শঙ্কা প্রবল হলো দলটির।

শুরু থেকে আক্রমণ করে গেলেও গোল পাচ্ছিল না পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। অবশেষে ম্যাচের ৪৪তম মিনিটে ব্রাজিল কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পায়। সফল স্পট-কিকে জাতীয় দলের জার্সিতে নিজের ৭১তম গোলের দেখা পান নেইমার। তাকেই ডি-বক্সে মরিসিও ইসলা ফাউল করায় পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়েছিলেন রেফারি। ধাক্কা সামলে না উঠতেই ফের গোল হজম করে সফরকারীরা।

ডি-বক্সের বামদিক থেকে আন্তোনির পাস পেয়ে নিচু শটে বল জালে জড়িয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রিয়াল মাদ্রিদ ফরোয়ার্ড ভিনিসিয়াস। ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয়ার্ধে খেলতে নামে ব্রাজিল। আর দ্বিতীয়ার্ধে নেমেই দেখা পেয়ে যাচ্ছিল তৃতীয় গোলের। কিন্তু শেষ মুহূর্তে বিপদমুক্ত করেন ক্লদিও বায়েজা।

৭২ মিনিটে ফের পেনাল্টির বাঁশি বেজে ওঠে। ডি-বক্সে আন্তোনিকে ফাউল করে হলুদ কার্ডও দেখেন ব্রাভো। এই দফায় স্পট-কিক নেওয়ার দায়িত্ব পড়ে ফিলিপ কুতিনহোর কাঁধে। বার্সেলোনা থেকে ধারে অ্যাস্টন ভিলাতে খেলা এই ফরোয়ার্ড সুযোগ কাজে লাগান। ব্রাজিল এগিয়ে যায় ৩-০ ব্যবধানে।

এরপর যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটে ব্রাজিলের বড় জয় নিশ্চিত করেন রিচার্লিসন। মাঠে নামার ১৬ মিনিটের মধ্যে গোলের স্বাদ নেন এভারটন স্ট্রাইকার। ব্রুনো গিমারেসের পাসে ডি-বক্সের ভেতরে জায়গা করে নিয়ে চিলির জাল কাঁপান তিনি। ব্রাভোকে গোলপোস্টের নিচে কঠিন সময় পার করতে হলেও ব্রাজিল গোলরক্ষক অ্যালিসনের অবস্থা ছিল ভিন্ন। তেমন কোনো পরীক্ষা দিতে হয়নি তাকে।

১৬ ম্যাচে ৪২ পয়েন্ট নিয়ে বাছাইয়ের পয়েন্ট তালিকার শীর্ষেই থাকল ব্রাজিল। ১৭ ম্যাচে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে সপ্তম স্থানে চিলি। ১৫ ম্যাচে ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে বিশ্বকাপ নিশ্চিত করা আর্জেন্টিনা।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*