গেইলের ছক্কায় লন্ডভন্ড অস্ট্রেলিয়া

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে যেন নিজেদের খুঁজে বেড়াচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। একের পর এক হার জন্ম দিচ্ছে হাজারো প্রশ্নের। এবার তো তৃতীয় টি-টোয়েন্টি হেরে সিরিজই হেরে বসেছে সফরকারীরা। পরাজয়ের বৃত্তে ঘুরপাক খেতে থাকা অ্যারন ফিঞ্চের দল মঙ্গলবার হেরেছে ৬ উইকেটে।

গ্রস আইসলেটে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অ্যারন ফিঞ্চ। ব্যাটিংয়ে নেমে পাওয়ার প্লে’তে ম্যাথু ওয়েড এবং অজি অধিনায়ক মিলে দারুণ সূচনা করেন। কিন্তু পঞ্চম ওভারে। ১৬ বলে ২৩ রান করে ওয়েড ফেরেন ওবেড ম্যাককয়ের বলে।

তিনে নামা মিচেল মার্শ এদিন উইকেটে বেশীক্ষণ থিতু হতে পারেননি। দলীয় ৭৮ রানে সাজঘরে ফেরার আগে করেন ১২ বলে ৯ রান। একপ্রান্তে টিকে থাকা ফিঞ্চও এরপর বিদায় নেন। ৭৯ এবং ৮০ রানে অ্যালেক্স ক্যারি ও ফিঞ্চের উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে অস্ট্রলিয়া। ১২ ওভারে ক্রিজে আসেন ময়সেস হেনরিক্স এবং অ্যাস্টন টার্নার।

এই দুজনের ব্যাটে স্কোরবোর্ডে রান যোগ করতে থাকে সফরকারীরা। কিন্তু অতোটা হাতখুলে খেলতে পারেনি এই জুটি। শেষ ওভারে সাজঘরে ফিরেছেন দুজনই। ময়সেস ২৯ বলে ৩৩ এবং টার্নার করেন ২২ বলে ২৪ রান। শেষ পর্যন্ত অস্ট্রলিয়া পায় ৬ উইকেটে ১৪১ রানের পুঁজি। ৪ ওভারে ১৮ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন হেইডেন ওয়ালশ।

১৪২ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে পাওয়ার প্লে’তে লেন্ডনল সিমন্স এবং আন্দ্রে ফ্লেচারকে হারিয়ে বসে স্বাগতিকরা। ফ্লেচার ফেরেন ৪ রানে, সিমন্স করেন ১৫। দুই ওপেনার ফিরলেও অস্ট্রেলিয়ার বোলারদের ওপর তান্ডব চালান ক্রিস গেইল।টি-টোয়েন্টির অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যানের ঝড়ে লন্ডভন্ড হয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া।

১১তম ওভারে অ্যাডাম জাম্পাকে এক চার ও ৩ ছক্কা হাঁকিয়ে গেইল তুলে নেন ৩৩ বলে হাফ সেঞ্চুরি।২০১৬ সালের পর এটি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে এটি তার প্রথম হাফ সেঞ্চুরি। এর আগে পূরণ করেন এই ফরম্যাটে ১৪০০০ রান। মেরেডিথের বলে আউট হওয়ার আগে গেইল করেন ৩৮ বলে ৬৭।

৭ ছক্কা এবং ৪ বাউন্ডারির সাহায্যে ইনিংসটি সাজান এই ক্যারিবিয়ান। ১২ ওভার শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে স্বাগতিকদের রান তখন ১০৯। গেইল ফেরার আগে জয়ের দরজা অনেকখানি খুলে দিয়ে যান।এরপরের কাজটা করেন নিকোলাস পুরান, ডোয়াইন ব্রাভো এবং আন্দ্রে রাসেল। ব্রাভো ৭ রানে ফিরলেও ২৭ বলে ৩২ রানে অপরাজিত থাকেন পুরান। ৭ রানে অপরাজিত থাকেন রাসেল। ৪৮ রানে ৩ উইকেট নেন রাইলি মেরেডিথ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

অস্ট্রেলিয়া: ২০ ওভারে ১৪১/৬ (ওয়েড ২৩, ফিঞ্চ ৩০, মার্শ ৯, কেয়ারি ১৩, হেনরিকেস ৩৩, টার্নার ২৪, ক্রিস্টিয়ান ১*; কটরেল ৪-০-৩২-০, রাসেল ৩-০-২৯-০, ম্যাককয় ১-০-৯-১, ব্রাভো ৩-০-১৭-১, অ্যালেন ৪-০-২৬-১, ওয়ালশ ৪-০-১৮-২, গেইল ১-০-৯-০)।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ১৪.৫ ওভারে ১৪২/৪ (সিমন্স ১৫, ফ্লেচার ৪, গেইল ৬৭, হেটমায়ার ৩২*, ব্রাভো ৭, রাসেল ৭*; স্টার্ক ৪-০-১৫-১, হেইজেলউড ৩-০-৩৩-০, মেরেডিথ ৩.৫-০-৪৮-৩, জ্যাম্পা ৩-০-৩৪-০, মিচেল মার্শ ১-০-৮-০)।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*