ক্রিকেট নাকি ফুটবল, যেখানে আর্জেন্টিনাকে তিনবার হারিয়েছে বাংলাদেশ!

বিশ্বকাপ কিংবা কোপা আমেরিকা এই সময়ে বাংলাদেশের ফুটবল প্রেমীদের বড় একটা অংশ ভাগ হয়ে যায় দু’ভাগে। কেউ সাপোর্ট করে মেসির আর্জেন্টিনাকে কেউবা নেইমারের ব্রাজিলকে। তবে ফুটবলের পাশাপাশি আর্জেন্টিনা যে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ খেলেছে তা হয়তো আমরা অনেকেই জানি না।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আর্জেন্টিনার যাত্রা শুরু হয় ১৬৮ সালে। সেই ম্যাচে আর্জেন্টিনার প্রতিপক্ষ ছিলো উরুগুয়ে। বাংলাদেশের বিপক্ষে এখন পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাফল্য পায়নি আর্জেন্টিনা। টাইগারদের বিপক্ষে তিনটি ম্যাচ খেলেছিলো আর্জেন্টিনা আর সেই তিনটি ম্যাচই হেরেছে তারা। বাংলাদেশের-আর্জেন্টিনা প্রথম মুখোমুখি হয় ১৯৮৬ সালের ২৫ জুন।

আইসিসি ট্রফির সেই ম্যাচে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক ছিলেন গাজী আশরাফ হোসেন লিপু। ৬০ ওভারের ওই ম্যাচে আগে ব্যাট করতে নেমে ১২২ রানে অল-আউট হয়েছিল আর্জেন্টিনা। ওপেনার রকিবুল হাসানের অপরাজিত ৪৭ রানে ভর করে ৭ উইকেটে সহজেই জয় তুলে নিয়েছিল বাংলাদেশ।

আইসিসি ট্রফিতে ১৯৯৪ সালে দুই দলের আবারো দেখা হয়। কেনিয়ার নাইরোবিতে অনুষ্ঠিত সেই ম্যাচেও জয় পেয়েছিল টাইগাররা। ৪৩.২ ওভারে আর্জেন্টিনার করা ১২০ রান বাংলাদেশ টপকে যায় ৭ উইকেট হাতে রেখেই। আর্জেন্টিনার ইনিংস শেষ হতে না হতেই বৃষ্টির কারণে খেলাটি বন্ধ হয়ে যায়। পরদিন রিজার্ভ ডে’তে বাংলাদেশ ব্যাট করে জয় ছিনিয়ে নেয়।

আর ১৯৯৭ সালে আইসিসি ট্রফিতে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই বাংলাদেশ নেমেছিল আর্জেন্টিনার বিপক্ষে। দিনটি ছিল ২৪ মার্চ, ১৯৯৭। পরে ওই আসরে শিরোপা জিতেই বাংলাদেশ নিশ্চিত করেছিল প্রথমবারের মতো ক্রিকেট বিশ্বকাপে নিজেদের অংশগ্রহণ। এই ম্যাচে মাত্র ১৩৮ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল আর্জেন্টিনা। বার্নান্দো ইরিগুয়েনের অপরাজিত ৩০ই ছিল সর্বোচ্চ।

বল হাতে এনামুল হক মনি ও নাঈমুর রহমান দুর্জয় পেয়েছিলেন তিনটি করে উইকেট। ৫ উইকেট হারিয়ে ২৪ ওভারেই সেদিন লক্ষ্যে পৌঁছে গিয়েছিল টাইগাররা। দলের পক্ষে ৩৭ বলে ৫৩ রানের ঝলমলে ইনিংস খেলেছিলেন দুর্জয়। ব্যাটে-বলে অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে সেদিন ম্যান অব দ্যা ম্যাচও হয়েছিলেন তিনি।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*