কোনো ছাত্রী পরীক্ষা দেয়নি, সবার হয়ে গেছে বিয়ে

সারাবিশ্বের মতো করোনার প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশেও। তবে বাল্যবিয়ে প্রবণ বাংলাদেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে করোনার প্রকোপটা কিছু বেশিই প্রভাব খাটিয়েছে। প্রায় দের বছর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার সুযোগে বিয়ে হয়ে হয়ে গেছে অনেক শিক্ষার্থীর। নাটোরের বাগাতিপাড়ায় মিলেছে এমপ্ন অদ্ভুত ঘটনার।

উপজেলার পোড়াবাড়িয়া দাখিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে চলতি বছরের দাখিল পরীক্ষায় বাগাতিপাড়া মহিলা দাখিল মাদ্রাসার কোনো শিক্ষার্থী অংশ নেয়নি। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে করোনাকালে তাদের সবার বিয়ে হয়ে গেছে। মাদ্রাসাটির সুপার জানান, করোনা মহামারিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় সব পরীক্ষার্থীদের বিয়ে হয়ে যাওয়ায় কেউ পরীক্ষায় অংশ নেয়নি।

এ বছর বাগাতিপাড়া উপজেলার পেড়াবাড়িয়া মাদ্রাসা কেন্দ্রে ৫টি মাদ্রাসার পরীক্ষার্থীরা দাখিল পরীক্ষা অংশ নিচ্ছে। এসব মাদ্রাসার মোট ৯৮ জন শিক্ষার্থীদের ওই কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার কথা থাকলেও ৮৩ জন উপস্থিত হয়। অনুপস্থিত ১৫ জন পরীক্ষার্থীই বাগাতিপাড়া মহিলা মাদ্রাসার শিক্ষার্থী।

ওই মাদ্রাসা থেকে এ বছর মোট ১৫ শিক্ষার্থীর পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার কথা। কিন্তু কেউই পরীক্ষায় অংশ নেয়নি। মাদ্রাসা সুপার ওই সব শিক্ষার্থীর প্রবেশ পত্রও সংগ্রহ করেছেন। তবে কেউ পরীক্ষা দিতে আসেনি। এমনকি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে যোগাযোগ করেও কোনো লাভ হয়নি।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*