কৃষ্ণসাগরে রুশ-ব্রিটিশ উত্তেজনা চরমে !

ক্রিমিয়া উপকূলে ব্রিটিশ নৌবাহিনী ফের যদি কোনো উস’কানি’মূলক পদক্ষেপ নেয়, তবে তাদের যু’দ্ধ’জা’হাজের ওপর বো’মা নি’ক্ষে’পের হু’মকি দিয়েছে রাশিয়া। বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) যুক্তরাজ্যকে হুঁশিয়ারি করে রুশ উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী এমন মন্তব্য করেছেন। খবর রয়টার্সের। ব্রিটিশ যু’দ্ধ’জাহাজের রুশ জলসীমা ল’ঙ্ঘনের পর আ’নুষ্ঠানিক নিন্দা জানাতে মস্কোয় ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে রাশিয়া।

ওই জলসীমাকে রাশিয়া নিজের বলে দাবি করলেও ব্রিটেনসহ অন্যান্য দেশগুলো বলছে, তা ইউক্রেনের। যুক্তরাজ্য বলছে, এ ঘটনায় রাশিয়া যথার্থ বয়ান দেয়নি। তাদের কোনো নৌযানকে লক্ষ্য করে কোনো সতর্কতামূলক গু-লি ছো’ড়া হয়নি কিংবা বো”মাও নি’ক্ষে’প করা হয়নি। কৃষ্ণ’সাগরে ব্রিটেনের বিপ’জ্জ’নক পদ’ক্ষেপ আখ্যায়িত করে রাষ্ট্রদূত ডেবোরাহ ব্রো’নার্টকে ডেকে তির’স্কার করেছে মস্কো।

রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভার অভিযোগ, লন্ডন নি’র্লজ্জ মিথ্যা বলেছে। আর দেশটির উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই রেয়াকভ বলেন, আমরা সাধারণ বুদ্ধি কাজে লাগাতে আহ্বান জানাচ্ছি। আন্তর্জাতিক আইনের প্রতি সম্মান জানাতে বলছি। আর যদি তাতে কাজ না হয়, তবে আমরা বো”মা নি’ক্ষেপ করব।

ভূমধ্যসাগরে নিজেদের ক্ষমতা প্রদর্শন করতে কষ্ণসাগরকে ব্যবহার করছে রাশিয়া। তুরস্ক, ফ্রান্স, ব্রিটেন ও যুক্তরাষ্ট্রের মতো প্রতিদ্বন্দ্বীদের সঙ্গে রাশিয়ার কয়েক দশকের উত্তেজনার কেন্দ্রস্থল এই জলপথ। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, ইউ’ক্রেনের ওডিসা বন্দর থেকে জ’র্জিয়ার বাটুমি’তে যাওয়া ব্রিটিশ যু’দ্ধ”জাহাজ আ’ন্তর্জাতিক আইন অনুসারে চলাচল করেছে। এটি আন্তর্জাতিক জলসীমায় ছিল।

তিনি বলেন, এটা ইউক্রেনের জলসীমা। কাজেই এটির শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ব্যবহারের অধিকার আমাদের আছে।আর যু’দ্ধ’জাহাজের ৫০০ ফুট ওপর থেকে রুশ যু’দ্ধ’জাহাজ অনি’রাপদ কসরত করেছে বলে অভিযোগ ব্রিটিশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেন ওয়ালেসের। তিনি বলেন, ব্রিটিশ নৌবাহিনী সবসময় আন্তর্জাতিক আইন মেনে চলবে। নিরাপদ পথ দিয়ে যাতায়াতে অবৈধ বাধাকে তোয়াক্কা করবে না।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*