কঠোর লকডাউনে গার্মেন্টস খোলা নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত!

আগামী ২৮ জুন থেকে সারাদেশে সাতদিনের জন্য কঠোর লকডাউন শুরু হবে। এ সময়ে জরুরি পরিষেবা ছাড়া সকল সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হওয়া যাবে না। তবে কঠোর লকডাউনেও তৈরি পোশাকসহ শিল্প-কারখানা খোলা রাখার ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। লকডাউনেও শিল্প-কারখানা খোলা রাখার দাবি জানান মালিকরা। তাদের দাবির প্রেক্ষিতে শিল্প-কারখানা খোলা রাখার ইঙ্গিত দিয়েছে সরকার।

শনিবার (২৬ জুন) বিকেএমইএর প্রথম সহ-সভাপতি মো. হাতেম বলেন, গতকাল রাতে কেবিনেট সেক্রেটারির সাথে আমার কথা হয়েছে। তিনি নিশ্চিত করেছেন কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিল্প-কারখানা চলবে। তবে মানুষের চলাচল সংকুচিত করতে বলেছেন। তিনি বলেন, পোশাক কারখানা বন্ধ করে দিলে শ্রমিকরা গ্রামে ছুটবে। এতে করোনার সংক্রমণ আরও বাড়বে।

এছাড়া সামনে ঈদ। পোশাক কারখানা বন্ধ থাকলে আমরা বেতন বোনাস পরিশোধ করতে পারবো না। তিনি আরও বলেন, আমরা সরকারের কাছে এসব কথা জানিয়েছি। শিল্প-কারখানা খোলা রাখা যাবে বলে সরকারের পক্ষ থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে। উল্লেখ্য, করোনার সংক্রমণ রোধে আগামী ২৮ জুন থেকে সারাদেশে লকডাউন শুরু হবে। এ সময়ে জরুরি পণ্যবাহী ব্যতীত সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। লকডাউন কার্যকরে থাকবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*