এনজিওর কিস্তির ১ হাজার টাকা না দিতে পারায় কারাগারে গৃহবধূ

করোনার কারণে মাত্র এক হাজার দশ টাকা পরিশোধ না করায় নুরুন্নাহার নামের এক নারীকে মামলায় জড়িয়ে জেল খাটিয়ে সেই আফগানিস্তান থেকে আসা কাবুলিওয়ালাদেরকেও হার মানিয়েছে এক মাল্টিপারপাস সোসাইটি।

ঘটনাটি বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বাটাজোর ইউনিয়নের বাসুদেবপাড়া গ্রামের। এ ঘটনায় এলাকাবাসির মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। সচেতন নাগরিকরা ওই মাল্টিপারপাসের লাইসেন্স বাতিলপূর্বক অভিযুক্ত কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট উধ্বর্তন কর্মকর্তাদের কাছে দাবি করেছেন।

শুক্রবার সকালে ওই গ্রামের দিনমজুর সেলিম হাওলাদারের স্ত্রী নুরুন্নাহার বেগম সাংবাদিকদের বলেন, ২০১৯ সালে বাটাজোর বন্দরের বেসরকারি পপুলার মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি থেকে তিনি ৩০ হাজার টাকার ঋণ গ্রহণ করেন।

পরবর্তীতে নিয়মানুযায়ী তিনি প্রতি সপ্তাহে নয়শ’ টাকা হারে কিস্তি এবং সঞ্চয়ের টাকা পরিশোধ করে আসছেন। সর্বশেষ ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তিনি কিস্তি এবং সঞ্চয়ের টাকা জমা দিয়েছেন।

এতে মাল্টিপারপাসের অনুকূলে নুরুন্নাহারের ২০ হাজার নয়শ’ টাকা পরিশোধ করা হয় এবং সঞ্চয় বাবদ আট হাজার ৯০ টাকা জমা দিয়েছেন। এরইমধ্যে দেশে করোনা ভাইরাস শুরু হলে ওই মাল্টিপারপাসের অফিস বন্ধ থাকায় নুরুন্নাহার কিস্তি পরিশোধ করতে পারেননি। ফলে মাল্টিপারপাস সোসাইটি তার (নুরুন্নাহার) কাছে এক হাজার দশ টাকা পাওনা থাকে।

নুরুন্নাহার বেগম আরও বলেন, গত তিনদিন পূর্বে গৌরনদী মডেল থানার এসআই রফিকুল ইসলাম বাসুদেবপাড়া কালীবাড়ি বাজারে গিয়ে তাকে (নুরুন্নাহার) খোঁজাখুজি করেন।

বুধবার (১৯ মে) বেলা এগারোটার দিকে তিনি (নুরুন্নাহার) ওই এসআই’র সাথে দেখা করতে থানায় আসেন। এসময় তিনি জানতে পারেন পপুলার মাল্টিপারপাস সোসাইটির দায়ের করা মামলায় তার বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট হয়েছে। পরবর্তীতে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করেন।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*