এই দুই যমজ বোনের জীবনে যা ঘটেছে তা বিশ্বে প্রথম!

ব্রাজিলে ঘটে গেল এমন এক ঘ’টনা যা বিশ্বে কখনো হয়নি। জন্মের সময় দুই শিশুকেই ছেলে হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছিল। কিন্তু জেন্ডার কনফার্মেশন সা’র্জারির মাধ্যমে তারা নারীতে রূপান্তরিত হয়েছেন। বলা হচ্ছে ব্রাজিলের দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলীয় এক ছোট্ট শহরে বেড়ে ওঠা ১৯ বছর বয়সী দুই যমজ বোন মাইলা এবং সোফিয়ার কথা।

মাইলা এবং সোফিয়া জন্মের পর ছেলে হিসেবে চিহ্নিত হলেও তাদের কেউ কখনো পুরুষ ভাবেইনি। তারা সমাজে নারী হিসেবেই চিহ্নিত হতেন। এদিকে বিশ্বের প্রথম এই জাতীয় অ’স্ত্রোপ’চারের সঙ্গে জড়িত ডা. জোসে কার্লোস মার্টিনস বলেছেন, যে এই যমজ জন্মের সময় ছেলে হিসেবে জন্মগ্রহণ করেছিলেন তবে এখন অ’স্ত্রোপ’চার করে মহিলা লিঙ্গ নিশ্চিতকরণের ঘটনা এটাই বিশ্বে প্রথম।

ডা জোসে আরো জানান, তাদের অ’স্ত্রোপচা’রে সময় লেগেছিল ৫ ঘণ্টা। এদিকে অ’স্ত্রোপ’চারের ১ সপ্তাহ পরে, মাইলা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তাদের জীবন সংগ্রামের পুরো গল্পটি জানিয়েছেন। তিনি বলেছিলেন, আমি সর্বদা আমার শরীরকে ভালবাসি। মাইলা আর্জেন্টিনায় চিকিৎসা শা’স্ত্রে পড়াশোনা করছেন।

তিনি আরও বলেছিলেন, ১৯ বছর ধরে আমরা যমজ বোন হিসাবে চিহ্নিত, আমাদের কখনই ছেলে হিসাবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়নি। শুধু তাই নয় তারা বহুবার যৌ.ন হয়’রানি’র শি’কার হয়েছিলেন। এছাড়া অনেকবার তাদের দুজনকে বু’লিংয়ের শি’কার হতে হয়েছিল। সে সময় দুই বোন নিজেদের একে অ’পরকে সম’র্থন দিয়ে গেছেন।

তিনি বলেন, আমরা শৈশব নি’র্যাত’নের শি’কার হয়েছি, তবে আমাদের পরিবারের সর্বদা সমর্থন রয়েছে। মা বাবার আমাদের নিয়ে কোন সমস্যা হয়নি। বরং বাইরের মানুষদের নিয়েই তারা ভয় পেয়েছেন। শুধু তাই নয় তাদের দাদা এই অ’স্ত্রোপ’চারের সম্পূর্ণ অর্থ বহন করেছেন। আর তা করতে গিয়ে ২০ হাজার ডলারের সম্প’ত্তি বিক্রি করে দিয়েছেন।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*