এই গ্রামের বাসিন্দা হলেই পাবেন ২৮ লাখ টাকা

জীবিকার তাগিদে মানুষ ছুটছে ইট পাথরের শহরের দিকে। উন্নত জীবনযাপনের কাছে এখন সুস্থ জীবনযাপনের কথা চিন্তা করার সময় নেই কারো। বিশ্বের সব দেশেই এখন একই চিত্র। তবে একটা সময় ছবির মতো সুন্দর বাড়ির।

যেখানে চারদিকে সবুজ পাহাড় ও তার মাঝে সাজানো-গোছানো সারি সারি ভবন ও পথঘাট। পাশেই কোনো লেক কিংবা নদী থাকে। আপনার এই স্বপ্ন পূরণ করার সুবর্ণ সুযোগ দিচ্ছে ইতালি। একই সঙ্গে পাবেন দুটি সুবিধা। একদিকে গ্রামের সবুজ পরিবেশে নিজেকে সতেজ করা।

অন্যদিকে দেশটির সরকার আপনাকে দেবে বিপুল পরিমাণ অর্থ! ইতালির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ক্যালাবরিয়া অঞ্চলে অবিশ্বাস্য এই সুবিধা পাওয়া যাবে। তবে এক্ষেত্রে সেখানে গিয়ে আগে আপনাকে রেস্তোরাঁ বা দোকান খুলতে হবে এবং আবাস গড়ে তুলতে হবে।

তাহলেই সরকারের পক্ষ থেকে তিন বছরে ৩৩ হাজার মার্কিন ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ২৮ লাখ টাকা) পাওয়া যাবে। মূলত অঞ্চলটির গ্রামগুলোতে জনসংখ্যা দ্রুত কমছে এবং ইতিমধ্যে অনেক গ্রাম জনশূন্য হয়ে পড়েছে।

তাই বাহির থেকে মানুষ নিয়ে গিয়ে গ্রামগুলোর জীবন ও আর্থিক কাঠামো সচল রাখতেই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সিভিতা, বোভা, আলবিদোনা, সান্তা সেভেরিনা, সান দোনাতো দ্য নিয়েনাসহ ওই অঞ্চলের বেশ কয়েকটি গ্রাম আপনাকে এই সুযোগ দিতে যাচ্ছে।

বিশেষ করে তরুণদের আকৃষ্ট করতে এই পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে। শর্তের মধ্যে বলা হয়েছে, সরকারের অনুমতি পাওয়ার তিন মাসের মধ্যেই আবেদনকারীকে সেখানে যেতে হবে। এরপর রেস্তোরাঁ, বার, দোকান কিংবা খামার চালুর মাধ্যমে আবাস গড়ে তুলতে হবে।

তাহলেই প্রতি মাসে ৮০০ থেকে ১ হাজার ইউরো প্রণোদনা মিলবে। রিজিওনাল কাউন্সিলর জিয়ানলুকা গ্যাল্লো জানান, উদ্যোগটি সফল হলে আগামী বছরগুলোয় এমন আরও আকর্ষণীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। গত বছরও এমন সুযোগ পেয়েছে সে দেশের মানুষ।

মাত্র ১০০ টাকায় বাড়ি কেনার সুযোগ ছিল তাদের। বাংলাদেশি টাকায় ১০০ টাকা। যা ইউরো হিসেবে মাত্র ১ ইউরো। সৈকতের ধারে পাহাড়ের উপরে ছোট্ট এক বাড়িতে প্রিয়জনের সঙ্গে জীবন কাটাবেন এমন স্বপ্ন অনেকেই দেখেন।

কিন্তু সাধ থাকলেও সাধ্যের মধ্যে তা হয়ে ওঠে না। নাম মাত্র দামে ইতালির দক্ষিণে মলিস অঞ্চলে এক ইউরো খরচ করলেই আস্ত একটা বাড়ি মালিক হয়েছেন অনেকে। এই সব কিছুর পেছনে একটাই উদ্দেশ্য তা হচ্ছে- গ্রামগুলোকে পরিত্যক্ত হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করা।

তবে এসব জায়গায় থাকার রয়েছে নানান অসুবিধা। যেমন- গ্রামের রাস্তাগুলো খুবই সংকীর্ণ তাই গাড়ি নিয়ে চলাচলের সুযোগ নেই। বাড়িগুলো এতো জরাজীর্ণ যে যে কোন মুহূর্তে তা ধসে পড়তে পারে। তাই সংস্কার ছাড়া বাড়িগুলোতে বসবাসের কোনো সুযোগ নেই।

তবে একসময় এগুলো ছিল জমজমাট জায়গা। ইতালির এমন বেশ কিছু শহরে জনসংখ্যা কমছে। নতুন প্রজন্ম সব বড় শহরে চলে যাচ্ছে। ফলে খালি হয়ে পড়ে থাকছে ছোট শহরের বাড়িগুলো। পুরনো বাড়ির জন্য কেউ কর দিতেও রাজি হচ্ছেন না।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*